ভয়ংকর প্রতারক সাকিল পুলিশের জালে

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০২০, ০০:০০

বগুড়া ও সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

ঋণ দরকার? দেশি অথবা বিদেশি ব্যাংক? সুইস ব্যাংক বা আমেরিকার কোনো ব্যাংক, চাই কি বিশ্বব্যাংক? ১০০/২০০/৫০০ কোটি টাকা? দ্রুততম সময়ে লোন প্রসেসিং করে গ্রাহকের হাতে চেক তুলে দেওয়া কোনো ব্যাপারই ছিল না ডিজে শাকিলের কাছে। পত্রিকায় চাকরি দেওয়ার নামেও অর্থ বাগিয়ে নিত। জাল নিয়োগপত্র দিয়ে বেকার যুবকদের কাছ থেকে নিত মোটা অঙ্কের টাকা। প্রতারণার নানা কৌশল রপ্ত ছিল তার। অবশেষে পুলিশের জালে গত বুধবার তিন সহযোগীসহ ধরা পড়ল সে। গতকাল বৃহস্পতিবার তাদের বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করে ৬ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে বিচারক বিল্লাল হোসেন ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রতারক ডিজে শাকিল বাগিয়ে নিয়েছিল সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ও উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতির পদটিও। বিশ্বাস অর্জনের জন্য এমপি, মন্ত্রীদের নাম ব্যবহার করত। প্রতারিতরা টাকা ফেরত চাইলে তাদের ওপর নেমে আসত নানা নির্যাতন। ৫৭টা অনলাইন পত্রিকার মালিক বলে দাবি করত সে।

জানা গেছে, বগুড়ার গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আছলাম আলী পিপিএম জানান, ইন্টারন্যাশনাল লোন সার্ভিসের নামে ফেসবুক পেজে বিজ্ঞাপন দেখে বগুড়ার আমায়রা এগ্রো ফার্মের স্বত্বাধিকারী আমানত উল্লাহ তারেক ও অভি এগ্রো ফার্মের স্বত্বাধিকারী আশিক তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কমিশনের মাধ্যমে তাদের ৫ কোটি টাকা লোন পাইয়ে দেওয়ার নাম করে কয়েক দফায় ১৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ডিজে শাকিল। যুব উন্নয়ন অধিদফতর থেকে লোন অনুমোদনের চিঠি এবং সাড়ে চার কোটির দুটি চেকের স্ক্যান কপি তাদের মেইলে দেওয়া হয়। কিন্তু দীর্ঘদিনেও চেকের মূলকপি না দেওয়ায় তারা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন লোন অনুমোদনের চিঠি এবং চেকগুলো ভুয়া। পরে তারা বিষয়টি পুলিশকে জানায়। বগুড়া জেলা পুলিশ সদস্যরা গত বুধবার তাড়াশে অভিযান চালিয়ে শাকিলসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে। রাব্বী শাকিল ওরফে ডিজে শাকিল (৩২) উপজেলার বারুহাস পশ্চিমপাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার পুত্র। গ্রেফতারকৃত অপর দুজন হলো আইটি স্পেশালিস্ট কুস্মবী গ্রামের আবদুল মালেকের পুত্র হুমায়ুন কবির মিলন (২৮) ও ম্যানেজার নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার গাড়িক্ষেত্র গ্রামের সাইদুর রহমানের পুত্র হারুনার রশিদ ওরফে সাইফুল ইসলাম (২৬)।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, ডিজে শাকিল বিভিন্ন চাকরির নিয়োগপত্র, স্ট্যাম্প, চেক নিজের কম্পিউটারে তৈরি করত। এ যেন আরেক সাহেদ। তাদের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর থানায় প্রতারনা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা ফেসবুকে ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংক লোন সার্ভিস নামে পেজ খুলে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। গ্রেফতারকালে তার অফিস থেকে উদ্ধার করা হয় বারশত এক কোটি বাহাত্তর লক্ষ দশ হাজার টাকার ভুয়া চেক, ৬০টি সিম কার্ড, সামরিক বাহিনীর ভুয়া নিয়োগপত্র, বিভিন্ন গণমাধ্যমের ভুয়া পরিচয়পত্র ও জালিয়াতির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি।

সিরাজগঞ্জের তাড়াশের বারুহাস গ্রামের স্থানীয়রা জানান, ঢাকায় যারা ডিজে পার্টি করত এদের সঙ্গে ঘোরাফেরা করে এলাকায় এসে দু-একটি গানের মিউজিক ভিডিও তৈরি করে রাব্বি শাকিল। সেই থেকে সে ডিজে শাকিল হিসেবে পরিচিতি পায়। কোনো দিন রাজনীতি না করেও উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ও উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতির পদটিও বাগিয়ে নেয়।

 

 

"