ভারতের গুজরাটে করোনা হাসপাতালে আগুন, মৃত ৮

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০২০, ০০:০০

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা থেকে

গুজরাটের আহমেদাবাদে কোভিড হাসপাতালে বিধ্বংসী অগ্নিকা-ে মৃত্যু হয়েছে আটজন করোনা রোগীর। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় আগুন নেভানোর কাজ করেছে দমকল বাহিনী। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৩টায় ওই বেসরকারি কোভিড হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। শ্রেই হাসপাতাল থেকে তড়িঘড়ি করে ৪০ জন কোভিড রোগী সরিয়ে সিভিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর যাদের মৃত্যু হয়েছে, তারা প্রত্যেকেই আইসিইউ ওয়ার্ডে ছিলেন। তাদের মধ্যে পাঁচজন পুরুষ ও তিনজন মহিলা ছিলেন। আইসিইউতেই আগুন লাগে বলে জানা গেছে। মৃতরা সবাই আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। ৫০ শয্যার সেই হাসপাতালে ৪৫ জন করোনা আক্রান্ত ভর্তি ছিলেন। তাদের উদ্ধার করে ১০টি অ্যাম্বুল্যান্সের মাধ্যমে সর্দার বল্লভভাই পাটেল ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। হাসপাতালের বাইরে ভিড় জমান উদ্বিগ্ন রোগীর আত্মীয়রা। দমকলের কর্মীরা আগুন নেভানোর পাশাপাশা হাত লাগান রোগীদের উদ্ধারের কাজে। তবে কী করে ওই হাসপাতালে আগুন লাগল সে ব্যাপারে এখনো কিছু জানা যায়নি। অসমর্থিত সূত্রের খবর, শর্ট সার্কিট থেকেই ছড়িয়েছে আগুন।

এই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি টুইটে লিখেছেন, আহমেদাবাদের হাসপাতালে অগ্নিকা-ের ঘটনায় দুঃখিত। মৃতের পরিবারদের সমবেদনা জানাই। আহতরা দ্রুত সেরে উঠুন। পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি ও মেয়রের সঙ্গে কথা বলেছি। প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্তদের সবরকম সাহায্যের ব্যবস্থা করছে। প্রধানমন্ত্রীর বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিল থেকে মৃতদের পরিবার পিছু ২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর। আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। শ্রেই হাসপাতালে আগুন লাগার ঘটনা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি। তিন দিনের মধ্যে এই ঘটনার রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে গুজরাতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৬৫ হাজারেরও বেশি। করোনার জেরে সে রাজ্যে মোট মৃত্যু আড়াই হাজার ছাড়িয়েছে। ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। মৃত্যু হয়েছে ৩৯ হাজারেরও বেশি মানুষের। ভারতে প্রতিদিন গড়ে আক্রান্ত হচ্ছে ৫০ হাজরের বেশি মানুষ।

 

"