চট্টগ্রাম ব্যুরো

  ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২

বাংলাদেশ-ভারত ওয়ানডে

চট্টগ্রামে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা, বিশেষ ইউনিট 

হাস্যোজ্জ্বল মাহমুদউল্লাহ, সাকিবের সঙ্গে লিটন দাস

আগামী ১০ ডিসেম্বর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে দুদলের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচ। এই ম্যাচকে ঘিরে নেয়া হয়েছে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। চলতি সিরিজের শেষ ওয়ানডে ও প্রথম টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে এই চট্টগ্রামে। বৃহস্পতিবার ভারতীয় ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দল চট্টগ্রামে পৌঁছার কথা রয়েছে।

এদিকে, সমর্থকদের ভিড় সামলানোর জন্য খেলোয়াড়দের হোটেল ও জহুর আহমেদ স্টেডিয়াম ঘিরে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এর আগে গত মঙ্গলবার জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে নিরাপত্তার মহড়া শেষে সাংবাদিকদের বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার কথা জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়। এদিন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সোয়াত এবং মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) বোমা উদ্ধার ও নিষ্ক্রিয়করণ দল মহড়ায় অংশ নেয়। সম্ভাব্য সন্ত্রাসী ঘটনা কীভাবে মোকাবেলা করা হবে, বোমা বিস্ফোরণের মতো জরুরি পরিস্থিতি কীভাবে সামাল দেওয়া হবে, সে বিষয়ে সিএমপির এই ইউনিটগুলো মহড়া দেয়। এসময় সিএমপি কমিশনার বলেন, ‘ইতিমধ্যে চট্টগ্রামে বেশ কিছু আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়েছে। আমাদের পুলিশের পূর্ব অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের ক্রিকেট দলের সফর ঘিরে পরিকল্পিতভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, হোটেল থেকে মাঠে খেলোয়াড়দের আসা-যাওয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষণিক পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। র‌্যাব ও সোয়াতের সঙ্গে পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট একই সঙ্গে মাঠে থাকবে।’ তিনি বলেন, হোটেল থেকে মাঠে খেলোয়াড়দের আসা-যাওয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষণিক পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। এই সফরে কোনো ধরনের নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই। পাশাপাশি চলমান উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা বিবেচনায় বিশেষ প্রস্তুতি রয়েছে। গত ৪ ডিসেম্বর সফরের প্রথম ওয়ানডেতে ভারত বাংলাদেশের কাছে হেরেছে। বুধবার অনুষ্ঠিত হয়েছে দ্বিতীয় ওয়ানডে। তৃতীয় ম্যাচ ১০ ডিসেম্বর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। একই মাঠে ১৪ ডিসেম্বর শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচ।

ম্যাচের টিকিট সংগ্রহ করা যাবে ৯ ডিসেম্বর নগরীর বিটাক মোড়, এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে। এছাড়া ম্যাচের দিন জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের বুথেও টিকিট পাওয়া যাবে। যেখানে গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড, রুফটপ ১৫০০ টাকা, আন্তর্জাতিক গ্যালারি ১০০০ টাকা, ক্লাব হাউজ ৫০০ টাকা, পূর্ব গ্যালারি ৩০০ টাকা ও পশ্চিম গ্যালারির টিকিটের মূল্য ২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

পিডিএস/মীর

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
বাংলাদেশ-ভারত,ওয়ানডে,চট্টগ্রাম,ক্রিকেট
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close