ব্রেকিং নিউজ

সাকিব এখন মুক্ত বিহঙ্গ

প্রকাশ : ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৪০

সাহিদ রহমান অরিন
ছবিটি সাকিব আল হাসানের ফেসবুক আইডি থেকে নেওয়া

গত বছর এই অক্টোবরেই বাংলাদেশের আকাশ ছেয়ে গিয়েছিল কালো মেঘে। নেমে এসেছিল রাজ্যের অন্ধকার। জুয়াড়ি দীপক আগারওয়ালের দেওয়া ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব আইসিসিকে না জানানোয় এক বছর নিষিদ্ধ হয়েছিলেন দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসান। দেখতে দেখতে ফুরোল অভিশপ্ত সেই ৩৬৫ দিন। টাইগার ক্রিকেটের ‘বরপুত্র’ আজ থেকে ডানা মেলতে পারবেন মুক্ত বিহঙ্গের মতো। আবার মাঠ মাতাতে পারবেন লাল-সুবজের জার্সিতে।

বৈশ্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এই এক বছরে অন্তত ৩৬টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ মিস করার কথা ছিল সাকিবের। কিন্তু মহামারি করোনাভাইরাস যেন সাকিবের জন্য ‘শাপে বর’! খেলা হলে তবেই না এতগুলো ম্যাচ মিস করতেন সাকিব। করোনার হানার পর এখনো যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেই ফেরা হয়নি টাইগারদের! সাবেক বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে তাই খেলাবঞ্চিত থাকতে হয়েছে ডজনেরও কম ম্যাচে। অতিমারির কারণে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও স্থগিত হয়েছে। এই টুর্নামেন্টও মাঠে গড়ানোর কথা ছিল চলতি অক্টোবরেই। নিশ্চিতভাবে সাকিবকে এই বিশ্ব আসরেও দর্শক হয়ে থাকতে হতো। কিন্তু ভাগ্যের কী লীলাখেলা! ক্রিকেট বিধাতা যেন সাকিবের নির্বাসন-যন্ত্রণা লাঘব করতেই একের পর এক সিরিজ স্থগিতের সুব্যবস্থা করেছেন! এই ১২ মাসের সিংহভাগ সময় যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের সঙ্গেই কাটিয়েছেন তিনি। পেয়েছেন দ্বিতীয়বার পিতৃত্বের স্বাদ।

গত বিশ্বকাপের ‘অবিসংবাদিত সেরা’র তকমা পাওয়া সাকিব তর্কাতীতভাবে দেশের ইতিহাসেরও সেরা ক্রিকেটার। ব্যাট-বল হাতে মাতৃভূমির সুখ্যাতি বারবার সমুন্নত করেছেন। কিন্তু সেরারা মনে হয় একটু আলাদাই হন। আর সবার মতো নিয়মকানুন কিংবা আইনের মারপ্যাঁচে বাধা পড়তে চান না। তাইতো ক্রিকেটীয় কারণে যতবার শিরোনাম হয়েছেন, ততবার না হলেও অনেকবারই নেতিবাচক কারণে শিরোনাম হয়েছেন তিনি। তবে সবকিছু ছাপিয়ে যায় ২০১৯ সালের ২৯ অক্টোবরের। গভীর রাতে একটি জাতীয় দৈনিকের শীর্ষ সংবাদের শিরোনাম হয় শোকাচ্ছন্ন কালো কালিতে, ‘১৮ মাস নিষিদ্ধ হচ্ছেন সাকিব’ হইচই পড়ে যায় দেশের ক্রীড়াঙ্গনে। রাত পোহাতেই এই সংবাদের সত্যতা সন্ধানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, বিসিবি সভাপতি এবং সাকিবের বাসার সামনে ভিড় করেন ক্রীড়া সাংবাদিক এবং ভক্তরা।

কিন্তু মুখে কুলুপ এঁটে রাখেন সাকিব। একই অবস্থা ছিল বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপনেরও। দিনভর অপেক্ষার অবসান ঘটে সন্ধ্যায়। মলিন চেহারায় বোর্ড কার্যালয়ে আসেন সাকিব। আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়, ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও তা আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটকে (আকসু) না জানানোয় এক বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে সাকিব আল হাসানকে। খবরটা ভাইরাল হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন অনুরাগীরা।

নিষেধাজ্ঞার খড়গ মাথায় নিয়ে মার্কিন মুলুকে চলে যান সাকিব। কিন্তু আকাশসম জনপ্রিয়তা যার, তিনি কি আর অলস সময় কাটাতে পারেন? করোনায় আক্রান্ত দেশের মানুষের জন্য সামনে নিয়ে আসেন নিজের ফাউন্ডেশনকে। সাত সমুদ্র-তেরো নদী দূরত্বে বসে থেকেও সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন দুস্থ মানুষের জন্য। এরই মধ্যে দ্বিতীয় কন্যাসন্তানের জন্ম দেন তার স্ত্রী। দুই মেয়ে আর স্ত্রীকে নিয়ে কাটতে থাকে তার নিষেধাজ্ঞার সময়।

করোনার মধ্যেই শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার তোড়জোড় শুরু করে বিসিবি। আবারও দেশের ডাকে সাড়া ফিরে আসেন ‘মিস্টার সেভেন্টি ফাইভ’। নিজ পাঠশালা বিকেএসপিতে শৈশবের গুরুদের হাত ধরে চলে তার প্রত্যাবর্তনের লড়াই। লোকালয় থেকে দূরে গিয়েই নিজেকে গুছিয়ে নিতে শুরু করেন ৩৩ বছর বয়সি তারকা।

কিন্তু শ্রীলঙ্কা সরকারের কঠিন শর্ত মানতে বিসিবি অপারগতা প্রকাশ করায় বাতিল হয়ে যায় সফর। ফলে সাকিব আবার ফিরে যান পরিবারের কাছে। আপাতত নিউইয়র্কে আছেন তিনি। সাকিবের মুক্তিতে কাল নিউইয়র্কের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকার আকাশে ছিল উৎসবের আমেজ। দেশের ক্রিকেটের বরপুত্রকে যেন নতুন করে বরণ করে নিলেন প্রবাসীরা। জমকালো সংবর্ধনায় সিক্ত হওয়ার দিনে সাকিব আবারও বললেন, তার ভুল থেকে যেন সবাই শিক্ষা নেন। মাঠে ফিরেই দেশের ক্রিকেটকে আরো এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন তিনি।

আগামী ১৫ নভেম্বর করপোরেট টি২০ লিগ দিয়ে প্রত্যাবর্তন ঘটবে সাকিবের। সব ঠিক থাকলে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাতেই দেশের মাটিতে মুক্ত বিহঙ্গের মতোই উড়ে আসবেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা তো তাকে ‘বরণ বিদায়’ দিলেন। এবার ঘরের ছেলেকে ঘরে ফিরিয়ে নেওয়ার পালা।

বাংলাদেশের জান, বাংলাদেশের প্রাণ সাকিব আল হাসানকে অভ্যর্থনা জানাতে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফুল-ব্যানার-প্ল্যাকার্ড হাতে ভক্ত-অনুরাগীদের ভিড়টা কেমন পড়বে, সেটা ভাবতে গিয়ে শিহরণ জাগছে এখনই!

পিডিএসও/হেলাল