সংসদ প্রতিবেদক

  ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

সংসদীয় কমিটির বৈঠক 

টিকা উৎপাদন কারখানা স্থাপন দ্রুত করার তাগিদ 

ফাইল ছবি

দেশে একটি পূর্ণাঙ্গ ভ্যাকসিন ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্ট ও ইনস্টিটিউট স্থাপনের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। যেখানে করোনা ভ্যাকসিনসহ সব ধরনের টিকা উৎপাদন করা যাবে। কারখানার জন্য জমি অধিগ্রহণ চলছে। ইতোমধ্যে সরকারি ৫ কর্মকর্তা দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ভ্যাকসিন তৈরির ওপর প্রশিক্ষণও নিয়েছেন। দক্ষ জনবল তৈরির জন্য পর্যায়ক্রমে অন্যরাও বিদেশে প্রশিক্ষণে যাবেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কমিটির সভাপতি শেখ ফজলুল করিম সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শেষে এসেনসিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেড (ইডিসিএল) কর্তৃক গোপালগঞ্জে বাস্তবায়িত ওই প্রকল্পের কাজ দ্রুত শেষ করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈশ্বিক মহামারি করোনা সংকটের কারণে সারা বিশ্বে নতুন এই রোগের ভ্যাকসিন দুষ্প্রাাপ্য হয়ে ওঠায় সংসদীয় কমিটি গত বছর বাংলাদেশে ভ্যাকসিন তৈরির সুপারিশ করে। প্রথমে বিদেশ থেকে করোনার ভ্যাকসিন এনে তা বাংলাদেশে বোতল ও মোড়কজাতকরণের চিন্তা করা হলেও পূর্ণাঙ্গ ভ্যাকসিন ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্ট ও ইনস্টিটিউট স্থাপনে একটি পরিপূর্ণ প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয়। এ ক্ষেত্রে কেবল করোনা নয়, সব ধরনের রোগের প্রতিষেধক টিকা উৎপাদন উপযোগী কারখানা স্থাপনের সুপারিশ করা হয়। কমিটি প্রাথমিকভাবে গোপালগঞ্জে অবস্থিত এসেনসিয়াল ড্রাগসের ইউনিটের সঙ্গে এই কারখানা স্থাপনের সুপারিশ করে।

সূত্র আরো জানায়, সংসদীয় কমিটির সুপারিশের পর সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) কাছে প্রস্তাব দেয়। এডিবির উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন স্বাস্থ্যবিষয়ক কমিটি গোপালগঞ্জ পরিদর্শন শেষে প্রকল্প বাস্তবায়ন ও ফান্ড প্রদানে সম্মতি দিয়েছে। এই কারখানা স্থাপনের জন্য গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন ভূমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু করেছে। এডিবির অর্থায়নে এসেনসিয়াল ড্রাগসের ৫ কর্মকর্তাকে ভ্যাকসিন তৈরির ওপর প্রশিক্ষণ গ্রহণে দক্ষিণ কোরিয়া পাঠানো হয়। পর্যায়ক্রমে অন্যান্যদের পাঠানো হবে বলে জানানো হয়েছে।

বৈঠক শেষে সংসদীয় কমিটির সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক সাংবাদিকদের জানান, ভ্যাকসিন কারখানা স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে। জমি অধিগ্রহণের কাজ চলছে। সেখানে কোভিডসহ সব ধরনের ভ্যাকসিন তৈরির ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। এডিবি এতে ফান্ডিং করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তিনি বলেন, ‘ইডিসিএলের ৫ কর্মকর্তা বিদেশ থেকে এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছেন। যেহেতু এটা আমাদের জন্য নতুন, কাজেই বিদেশে আরো প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হবে। দক্ষ জনবল গড়ে তুলতে পর্যায়ক্রমে অন্যান্য কর্মকর্তা বিদেশে প্রশিক্ষণে যাবেন।’

এদিকে বৈঠকে ‘আন্তর্জাতিক উদারাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ বিল-২০২২’ নিয়ে আলোচনা শেষে প্রয়োজনীয় সংশোধন, সংযোজন ও পরিমার্জন করে সংসদের পরবর্তী অধিবেশনে এ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বৈঠকে চিকিৎসাক্ষেত্রে দেশে উচ্চশিক্ষা প্রসারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রমে সরকারি-বেসরকারি মেডিকেলের অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও সহকারী অধ্যাপকদের গবেষণায় অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদানের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বৈঠকে কমিটির সদস্য ডা. আ ফ ম রুহুল হক, মুহিবুর রহমান মানিক, ডা. মো. আবদুল আজিজ, সৈয়দা জাকিয়া নুর ও মো. আমিরুল আলম মিলন এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
টিকা,সংসদীয় কমিটি
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close