গাজী শাহনেওয়াজ

  ০৮ আগস্ট, ২০২২

কে হচ্ছেন পরবর্তী ডেপুটি স্পিকার

কে হচ্ছেন একাদশ জাতীয় সংসদের পরবর্তী ডেপুটি স্পিকার। সংসদ এবং সংসদের বাইরে রাজনৈতিক অঙ্গনে এটি এখন সরব আলোচনা। সংসদ সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২৮ আগস্ট জাতীয় সংসদের ১৭তম অধিবেশন বসবে; ওইদিনই মনোনীত করা হবে ডেপুটি স্পিকার। সংসদীয় কার্যপ্রণালি বিধি অনুযায়ী, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও হুইপের পদ শূন্য হলে পরবর্তী অধিবেশনের প্রথম কর্মদিবসে তা পূরণ করার রেওয়াজ আছে।

এদিকে, সদ্য প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার শূন্য পদে একাধিক ব্যক্তির নাম উচ্চারিত হচ্ছে। তবে সব গুঞ্জন ছাপিয়ে রাষ্ট্রের নীতিনির্ধারকদের বেশির ভাগের পছন্দের নাম আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শহীদুজ্জামান সরকার। সজ্জন ও সংসদ বিষয়ে সম্যক ধারণা রয়েছে, এটাও ডেপুটি স্পিকার হওয়ার দৌড়ে অন্যদের থেকে এগিয়ে। আইন সংসদীয় কমিটির সভাপতির ডেপুটি স্পিকার হওয়াতে সম্মতি রয়েছে তার পাশাপাশি সংসদের স্পিকারের বলে সংসদের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে। সরকারদলীয় হুইপদের মধ্যে থেকে ইতোমধ্যে কেউ কেউ তার সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেছেন। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হুইপের আলাপও হয়েছে। সংশ্লিষ্ট হুইপ বলেছেন, শহীদুজ্জামান সরকারের বিষয়ে অনেকেই নমনীয়। জাতীয় সংসদের স্পিকারেরও আপত্তি নেই বলেও জানান ওই হুইপ।

এত কিছুর পরও সবাই তাকিয়ে আছেন গণভবনের দিকে; সেখান থেকে কী সিদ্ধান্ত আসে, সেজন্য অপেক্ষা। নির্বাহী প্রধান যাকে চাইবেন তিনিই পরবর্তী ডেপুটি স্পিকার হবেন। সঙ্গে হবেন জাতীয় সংসদ পরিচালনার জন্য স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সহকারী। খবর সংসদ সচিবালয় সূত্রের।

সংসদ সচিবালয় সূত্রমতে, ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া অসুস্থ হওয়ার পর এই পদ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। ইতোমধ্যে শোকসভাসহ আনুষ্ঠানিকতা শেষে ঘুরেফিরে আলোচনা এখন দুটি। একটি প্রয়াত রাব্বী মিয়ার শূন্য পদ ডেপুটি স্পিকার এবং অন্যটি সংসদীয় আসনের শূন্য পদ। এখানে কারা আসবেন, এ নিয়েও চলছে আলোচনা। রবিবার (৭ আগস্ট) শিশু অধিকারবিষয়ক সংসদীয় ককাসের উদ্যোগে সংসদের এলডি হলে আয়োজিত শোকসভায় রাব্বী মিয়ার শূন্য আসনে তার মেয়েকে মনোনয়ন দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সুপারিশ জানাতে সরকারদলীয় হুইপকে অনুরোধ জানানো হয়। অপরদিকে ডেপুটি স্পিকারের পদ নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা এখন সংসদ ও সরকারি দলের অভ্যন্তরে।

কারণ জাতীয় সংসদ পরিচালনায় স্পিকারের পর দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ পদ ডেপুটি স্পিকার। সংগত কারণেই এই পদ পেতে মুখিয়ে আছেন সরকারদলীয় অনেক এমপি। এরমধ্যে সাবেক সরকারদলীয় প্রধান হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদের নাম শুরুতে সমস্বরে উঠে এলেও বর্তমান তা অনেকটা আলোচনার তলানিতে নেমে এসেছে বলে জানা গেছে।

সরকারদলীয় আরেকজন হুইপ নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ প্রতিবেদককে বলেন, ডেপুটি স্পিকার রাব্বী মিয়া অসুস্থ হওয়ার পর সংসদীয় আসনে পরিবর্তন আনা হয়। ডেপুটি স্পিকারের দৌড়ে এগিয়ে থাকা শহীদুজ্জামান সরকারকে তার আসন পরিবর্তন করে সরকারদলীয় হুইপের পেছনে প্রধানমন্ত্রীর কাছাকাছি আনা হয়। এটাও নির্বাহী প্রধানের দিক থেকে এক ধরনের ইতিবাচক সাড়া। যেহেতু আগামী ২৮ আগস্ট একাদশ জাতীয় সংসদের ১৭তম অধিবেশন শুরু হচ্ছে। আশা করছি, ওইদিনই ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত হবেন। শেষ হবে সব জল্পনা-কল্পনা। সেখানে ডেপুটি স্পিকার হিসেবে শহীদুজ্জামান সরকারকে দেখা যেতে পারে; এমন ইঙ্গিত উচ্চ মহলের।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ডেপুটি স্পিকার,সংসদ সচিবালয়,অধিবেশন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close