মুজিববর্ষ উপলক্ষে ফের বিশেষ অধিবেশন আয়োজনের উদ্যোগ

প্রকাশ : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২৮ | আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৩৪

সংসদ প্রতিবেদক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ফের সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বানের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এর আগে গত ২২ ও ২৩ মার্চ এ অধিবেশনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেও করোনার বিস্তারে স্থগিত হয়। করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসায় নতুন করে উদ্যোগ শুরু করতে যাচ্ছে সংসদ সচিবালয়। আগামী ৭ নভেম্বর এই বিশেষ অধিবেশন বসতে পারে এমন আভাস পাওয়া গেছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের সংশোধিত কর্মসূচি নিয়ে আয়োজিত বৈঠকে এ তথ্য উঠে এসেছে।

রোববার সংসদ ভবনে আয়োজিত সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিবের সভাপতিত্বে এ সংক্রান্ত বৈঠক হয়। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ভেস্তে যাওয়া আগের অধিবেশনের প্রস্তুতির মত এবারও বিদেশি অথিতিদের এই বিশেষ অধিবেশনে আমন্ত্রণ জানানো হবে। তবে সব কিছু নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির উপর।

এছাড়াও মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১০টি কর্মসূচি নিয়েছে জাতীয় সংসদ। এর মধ্যে এখন বৃক্ষরোপণ চলমান রয়েছে। নভেম্বরে মুজিববর্ষের ওয়েবসাইট উদ্বোধন, স্মারক ডাকটিকিট উম্নোচন, ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস উদযাপন, মাসব্যাপী আলোকচিত্র ও প্রামাণ্য দলিল প্রদর্শনী, ‘সংসদে বঙ্গবন্ধু’ বই প্রকাশনা, শিশুমেলাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে।

এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে। ২২ ও ২৩ মার্চ এই অধিবেশন চালানোর কথা ছিল। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে অধিবেশন স্থগিত করা হয়।  

গত ৩ মার্চ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২(১) ধারা অনুযায়ী দুই দিনের এই বিশেষ অধিবেশনের ডাক দিয়েছিলেন। দুই দিনের বিশেষ অধিবেশনে ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী ও নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারির ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল। তবে, প্রণব মুখার্জী সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন। এখন বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অভিজ্ঞ এমন কাউকে আমন্ত্রণ জানানোর চেষ্টা থাকতে পারে সংসদের পক্ষ থেকে।