প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

  ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

বাড়তি জিমে থাকে হৃদরোগের ঝুঁকি!

ছবি: প্রতিদিনের সংবাদ

শিরোনাম দেখে বিশ্বাস হচ্ছে না? জিমে আপনি যাচ্ছেন সুস্থ-সবল স্বাস্থ্য ও শরীর গড়তে। সেখানে গিয়ে হার্ট অ্যাটাক হবে কেন? এমনটাই হচ্ছে। বিশেষত নিকট অতীতে বেশ কজন সেলিব্রিটি জিমে গিয়ে হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়েছেন।

কিন্তু এমনটা কেন ঘটছে অহরহ? এর কারণ দেহে বাড়তি স্ট্রেস দেওয়া। জিমে গিয়ে অনেকেরই প্রিয় এক্সারসাইজ থাকে ভারোত্তলন। শুরু থেকেই জিমে ভারোত্তলন করলে তা হার্টে চাপ ফেলে। সেই অতিরিক্ত চাপ সহ্য করতে না পেরে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। জিমে গিয়ে প্রথম কয়মাস সাধারণ এক্সারসাইজ করতে হয়। মানিয়ে নেওয়ার পর লিফটিং-এর অভ্যাস করতে হয়। এক্ষেত্রে সতর্কতার বিকল্প নেই।

কার্ডিও ব্যায়াম করার ক্ষেত্রে টানা ১০ মিনিটের বেশি ব্যায়াম করা উচিত নয়। অনেকে নিজেকে আরেকটু চ্যালেঞ্জ নেওয়ার মানসিক নির্দেশনা দিয়েই একটানা করে যান। প্রতি কার্ডিও ব্যায়ামের পর পাঁচ মিনিট বিরতি নেবেন। এতে হার্ট রিলাক্স বোধ করবে। একটানা করলেই সুফল পাবেন এমন কোনো কারণ নেই। ওয়ার্ক আউটের একটি ভালো সময় নির্বাচন করুন। ডাক্তার বা প্রশিক্ষকের পরামর্শই শুধু গ্রহণ করবেন। আপনি অনলাইন ঘেটে সময় নির্ধারণ করবেন না। বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের নিয়ম আলাদা হবেই। ওয়ার্ক আউটের সময় বুকের বাপাশে ব্যাথা হলেই বন্ধ করুন।

কিভাবে বুঝবেন ঝুঁকিতে আছেন : ওয়ার্ক আউটের সময় বুকের মাঝখানে বা বামদিকে ব্যথা শুরু হয়। এই অস্বস্তি কয়েক মিনিট স্থায়ী হয়। একবার যায় আবার ফিরে। এমন হলে বুঝবেন হার্টে অক্সিজেনের সরবরাহ ঠিক নেই। এছাড়াও মাথা ঘোরানো, ছটফটানি, তলপেটে ব্যথা ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়। লক্ষণ দেখলেই দ্রুত চিকিৎসাকেন্দ্রে যান। অপেক্ষা করবেন না আরেকটু নিশ্চিত হওয়ার জন্যে।

সূত্র : ইন্টারনেট।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
হৃদরোগ,জিম
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close