রান্নার মাঝেই খাবার পুড়েছে?

প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১৬:০৬

অনলাইন ডেস্ক

খাবার বসিয়ে দুমিনিটের জন্য অন্য কাজে মন দিয়েছেন। সেই দুমিনিটের মধ্যেই খাবার পুড়ে গেছে। কোনও রকমে তাকে নেড়ে খুঁচিয়ে তুললেও খাবারময় পোড়া গন্ধ! সবথেকে বেশি সমস্যা হয় দুধের ক্ষেত্রে। এদিকে খাবার পুড়ে গেলে তার যেমন ঘরময় গন্ধ ওঠে তেমনি তার আগের এত পণ্ডশ্রম একেবারেই জলে যায়। সঙ্গে রান্নাঘর পরিষ্কার করা, কড়াই মাজা এসবের আলাদা ঝক্কি তো আছেই। কষ্ট করে রান্না করা খাবার নষ্ট হলে সবারই খারাপ লাগে। অনেক সময় বাধ্য হয়ে খাবার ফেলেও দিতে হয়।

পোলাও বা বিরিয়ানি রান্না করতে গিয়ে যদি হাঁড়ির তলা ধরে যায় তাহলে ওই পাত্র থেকে খাবর সরিয়ে অন্যত্র রাখুন। কারণ পোড়া গন্ধ খুব সহজে যেতে চায় না। এবার অন্য পাত্রে যেখানে খাবর তুলে রেখেছেন তার উপর একটা পাঁউরুটির স্লাইস রাখুন। পাঁউরুটি পোড়া গন্ধ অনেকখানি শুষে নেয়। আর ওই পাত্র একদম লো ফ্লেমে বসান।

তবে তলার দিকে খুঁচিয়ে পোড়া অংশ বিশেষ তুলবেন না। উপর থেকে ভালো খাবার নিয়ে নিন। সব হয়ে গেলে একবার চেষ্টা করে দেখতে পারেন। কিন্তু পোড়া অংশ মিশলে গন্ধ আবার আগের মতই উঠবে। স্টিলের কড়াইতে এই ধরনের সমস্যা বেশি হয়। যখনই বুঝবেন যে কোনও পাত্রের তলা পাতলা হয়ে গেছে তখনই সেই পাত্র পরিবর্তন করে অন্য পাত্র ব্যবহার শুরু করবেন।

মাংসে বেশি মশলা থাকলে অনেক সময়ই তলায় লেগে যায়। এক্ষেত্রে আলু আর মাংসের টুকরো আগে তুলে নেবেন। মশলা-গ্রেভি যেটুকু সম্ভব তুলবেন। বাকি পোড়া অংশ খোঁচাখুঁচি করবেন না। এবার অন্য কড়াইতে তেল দিয়ে কিছু পেঁয়াজ স্লাইস দিন। ওই পেঁয়াজ ভাজা ভাজা হলে মাংস আর আলু দিয়ে দিন। নামানোর আগে লেবুর রস আর গোলমরিচ গুঁড়া ছড়িয়ে দিন। তাহলে গন্ধ একদম দূর হয়ে যাবে।

ঝোল যদি খুব বেশি পুড়ে যায় আর সেই সঙ্গে মাংসও অল্প পুড়ে যায় তাহলে এই টোটকা ব্যবহার করুন। মাংসের টুকরো তুলে নিন। এবার ওই গ্রেভির মধ্যে সামান্য মিষ্টি কুমড়া ফেলে দিন। কুমড়া যতক্ষণ না সেদ্ধ হচ্ছে ততক্ষণ ওভাবেই রেখে দিন। সেদ্ধ হয়ে এলে আঁচ বন্ধ করে দশ মিনিট রেখে তুলে নিন। এবার মাংসের টুকরো গুলো গ্রেভিতে একে একে দিয়ে দিন।

এছাড়াও পুড়ে গেলে ও লবণ বেশি রাখলে আলু কেটেও দিতে পারেন। আলু সব গন্ধ শুষে নেয়। ফলে পোড়া গন্ধ কম আসবে আর তরকারিতে লবণের পরিমাণও ঠিকই থাকবে। আলু সেদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত তুলবেন না। সূত্র: এই সময়

পিডিএসও/ জিজাক