প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৫৭ | আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২০, ১৯:১০

নীলফামারী প্রতিনিধি
ফাইল ছবি

নীলফামারীতে বাক প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে ধর্ষণ মামলায় মো. মোতালেবকে (৩৫) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে রায় দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত মোতালেব জেলার সৈয়দপুর উপজেলার পূর্ব বোতলাগাড়ি ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত জবান উদ্দিনের ছেলে।

মামলার ১৩ বছর পর বুধবার দুপুরে আসামির অনুপস্থিতিতে ওই রায় প্রদান করেন নীলফামারী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত-১ এর বিচারক আহসান তারেক। 

মামলার সূত্রমতে, ২০০৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীসহ কয়েকজন মোতালেবের বাড়িতে টেলিভিশন দেখতে যায়। রাত ১০টার দিকে হঠাৎ বিদ্যুৎ বন্ধ হলে অন্যরা ঘর থেকে চলে যায়। এসময় ওই বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ঘরে আটকে ধর্ষণ করেন মোতালেব। এরপর ঘটনা প্রকাশ না করার জন্য হুমকি প্রদান করে। ওই ধর্ষণের ঘটনায় কিশোরীটি অন্তসত্বা হলে স্থানীয়রা শালিস বৈঠকে মোতালেবের সঙ্গে কিশোরীর বিয়ের প্রস্তাব দেয়। মোতালেব ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে কিশোরীকে ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। কিশোরীর বাবা সে প্রস্তাবে রাজী না হয়ে ২০০৭ সালের ১৭ আগস্ট মোতালেবকে আসামি করে নীলফামারী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালত মামলা দায়ের করেন।

নীলফামারী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিশেষ পিপি রমেন্দ্র নাথ বর্ধন বাপী বলেন, “রাষ্ট্র পক্ষ আসামির বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০-এর ৯ (১) ধারার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে সক্ষম হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা রায় প্রদান করেন। মামলা চলাকালীন আসামি মোতালেব জামিন নেয় এর পর থেকে পলাতক রয়েছেন।”

পিডিএসও/এসএম শামীম