reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ০৮ জুলাই, ২০২৪

চিকিৎসায় অর্থের অভাবে শিশুকন্যাকে জীবন্ত দাফন বাবার

প্রতীকী ছবি

দুই সপ্তাহ আগেই জন্ম নিয়েছে নবজাতক মেয়ে সন্তান। কিন্তু তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় খরচ বহনের সক্ষমতা নেই বাবার। আর এই যুক্তিতেই ১৫ দিন বয়সী মেয়েকে জীবন্ত দাফন করার মতো জঘন্য কাজ করলেন বর্বর ওই ব্যক্তি।

মর্মান্তিক এবং আতঙ্কজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশে। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে ইতোমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নিজের অপরাধও স্বীকার করেছেন তিনি।

রবিবার (৭ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম এআরওয়াই নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিন্ধ প্রদেশের থারুশাহতে নিজের ১৫ দিন বয়সী মেয়েকে জীবন্ত কবর দেওয়ার মতো জঘন্য অপরাধের দায়ে এক বাবাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে রোববার এআরওয়াই নিউজ জানিয়েছে।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, অভিযুক্ত ওই বাবার নাম তৈয়ব। গ্রেপ্তারের পর অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি তার অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন।

নিজের আর্থিক সীমাবদ্ধতার উল্লেখ করে তিনি দাবি করেছেন, তিনি তার শিশু কন্যার চিকিৎসার খরচ বহন করতে পারছিলেন না। আর এ কারণেই নবজাতককে বস্তায় ভরে দাফন করেন তিনি।

এআরওয়াই নিউজ বলছে, পুলিশ সন্দেহভাজন অভিযুক্ত তৈয়বের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে এবং সে ইতোমধ্যেই তার অপরাধের স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আদালতের নির্দেশের পর নাবালক শিশুটির লাশ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্ত করা হবে।

পিডিএস/এমএইউ

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
পাকিস্তান,সিন্ধু প্রদেশ,কন্যাসন্তান,জীবন্ত দাফন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close