reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ২৮ নভেম্বর, ২০২১

মুদ্রার রেকর্ড দরপতন, তদন্তের নির্দেশ দিলেন এরদোগান

ছবি : সংগৃহীত

তুরস্কে মুদ্রার (লিরা) রেকর্ড দরপতনের পর সম্ভাব্য কারসাজির ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ এরদোগান। সুদের হার কমানোর প্রতিশ্রুতি ঘোষণার পরই এই সপ্তাহে তুরস্কে লিরার রেকর্ড দরপতন হয়। চলতি বছরে মুদ্রাটির ৪৫ শতাংশ মূল্য কমেছে। এর মধ্যে গত দুই সপ্তাহে অর্ধেক দর পতন হয়েছে।

ডলারের তুলনায় তুরস্কের মুদ্রা লিরার দাম আরো পড়ে যাওয়াতে দেশটিতে জিনিসপত্রের দাম রীতিমতো লাগামছাড়া!

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সির খবরে বলা হয়, প্রেসিডেন্টের কাছে দায়বদ্ধ একটি নিরীক্ষা সংস্থা স্টেট সুপারভাইজরি কাউন্সিলকে তদন্তের জন্য বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন এরদোগান। বিদেশি মুদ্রা বিপুল পরিমাণে কারা কিনেছে তা চিহ্নিত করতে এবং কোনও কারসাজি হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে বলেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বছর অক্টোবর মাসের তুলনায় চলতি বছরে তুরস্কে মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে ২০ শতাংশ। যদিও নিরপেক্ষ মুদ্রাস্ফীতি রিসার্চ গ্রুপের মতে, আগের তুলনায় মুদ্রস্ফীতি প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়েছে।

তুরস্কের অর্থনীতির এই অবস্থার একটি কারণ হলো করোনা। তার ওপর রয়েছে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের অর্থনীতি নিয়ে বিচিত্র চিন্তাভাবনা। তার ধারণা, মুদ্রার দাম কম হওয়া মানে আর্থিক বৃদ্ধি সুনিশ্চিত হওয়া। ঋণের ক্ষেত্রে সুদের পরিমাণ কম রাখলেই অর্থনীতি ফুলেফেঁপে উঠবে!

অবশ্য, অর্থনীতিবিদরা এরদোগানের এই মত ও পথ মানেন না। তাদের মতে, এমন নীতির ফলেই তুরস্কের এই অবস্থা! সুত্র:আল জাজিরা

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
তুরস্ক,মুদ্রা,দরপতন
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close