reporterঅনলাইন ডেস্ক
  ০৭ মে, ২০২১

ভারতে রেমডেসিভির ওষুধ বহনকারী বিমান বিধ্বস্ত

করোনায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য তৈরি করা রেমডেসিভির ওষুধ। ছবি : এনডিটিভি

ভারতে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জরুরি চিকিৎসার জন্য রেমডেসিভির ওষুধ বহনকারী একটি বিমান দুর্ঘটনার সম্মুখিন হয়েছে। ভয়াবহ এ ঘটনায় তিনজন গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে তথ্যটি জানানো হয়।

খবরে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার ভারতের গোয়ালিয়ায় মধ্য প্রদেশ অ্যাভিয়শনের সাত সিটের একটি বিমান রেমডেসিভির ওষুধ নিয়ে রানওয়েতে জরুরি অবতরণ করে। তবে যে গতিতে এটি অবতরণ করেছে, তাকে রানওয়েতে বিধ্বস্ত হয়ে পড়াই বলা যেতে পারে।

এ ঘটনায় বিমানের ক্যাপ্টেন ও কো-ক্যাপ্টেনসহ তিনজন আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে ভারতীয় বিমান বাহিনী পরিচালিত মহারাজপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তারা সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

একই দিন নাগপুর থেকে হায়দরাবাদগামী একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স আকাশে থাকা অবস্থায় তার একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে গেছে। তবে এ ঘটনার পর বিমানটি নিরাপদেই ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করেছে।

মুম্বাইয়ে অবতরণের সময় ত্রুটির মধ্যে পড়েছিল একটি অ্যাম্বুলেন্স বিমান। তবে বড় কোনো বিপদে পড়েনি বিমানটি।

গোয়ালিয়ারের সিনিয়র পুলিশ অফিসার অমিত সংঘি জানান, এ দুই দুর্ঘটনাই বিমান রানওয়েতে নামার সময় হয়েছে। তবে গোয়ালিয়ায় বিমানটিতে রেমডেসিভির ইঞ্জেকশনের চালানের কোনো ক্ষতি হয়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন জানাচ্ছে, বৃহস্পতিবার নাগপুর থেকে একজন রোগী ও একজন চিকিৎসককে নিয়ে হায়দরাবাদ যাচ্ছিল বিমানটি। তবে আকাশে ওড়ার পরই ত্রুটি দেখা যায় এর যন্ত্রাংশে। তার একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে যায়।

এরপর সেটিকে দ্রুত ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করানো হয়। পরিকল্পনা মতো, মুম্বাই বিমানবন্দরে বিমানটি নামানো হয়েছে।

জানা গেছে, ল্যান্ডিং গিয়ার ব্যবহার না করে বেলি ল্যান্ডিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন চালক। অর্থাৎ বিমানের চাকা ভেতরে না ঢুকিয়েই তাকে মাটিতে নামিয়ে আনা। সে কারণে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে রানওয়েতে ফোমের ব্যবস্থা করেছিলেন বিমানবন্দরের কর্মীরা।

পিডিএসও/ইউসুফ

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ভারত,প্রাণঘাতী,করোনাভাইরাস,চিকিৎসা,রেমডেসিভির,বিমান দুর্ঘটনা
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close