নিজস্ব প্রতিবেদক

  ১১ অক্টোবর, ২০২১

না ফেরার দেশে ড. ইনামুল হক

চলে গেলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত গুনী অভিনেতা, নাট্যকার, নির্দেশক ও শিক্ষক ড. ইনামুল হক। 

সোমবার (১১ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৭৮ বছর। তিনি দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে হঠাৎই মৃত্যুবরণ করেন। 

অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম প্রতিদিনের সংবাদকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কোনো ধরনের অসুস্থতা ছিলো না তার। হঠাৎ শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে ইসলামিয়া হাসপাতালে নেওয়া হয়৷ সেখানকার কতব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। গুনী এই অভিনেতার মৃত্যুতে অভিনয় শিল্পী সংঘ শোকাহত। 

ড. ইনামুল হকের জন্ম ১৯৪৩ সালের ২৯ মে ফেনী সদরের মটবী এলাকায়। তার বাবা ওবায়দুল হক ও মা রাজিয়া খাতুন। ফেনী পাইলট হাইস্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ থেকে অনার্স ও এমএসসি সম্পন্ন করেন। ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি পিএইচডি লাভ করেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি দীর্ঘ ৪৩ বছর শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত থাকার সময়ে দীর্ঘ ১৫ বছর রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান এবং দুই বছর ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নটর ডেম কলেজে পড়াশোনাকালীন সময়েই তিনি প্রথম মঞ্চে অভিনয় করেন। ফাদার গাঙ্গুলীর নির্দেশনায় তখন তিনি ‘ভাড়াটে চাই’ নাটকে প্রথম অভিনয় করেন। ১৯৬৮ সালে বুয়েট ক্যাম্পাসেই নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়র যাত্রা শুরু হয়। এই দলের হয়ে প্রথম তিনি মঞ্চে অভিনয় করেন আতাউর রহমানের নির্দেশনায় ‘বুড়ো শালিকের ঘাড়ে রো’। ১৯৯৫ সালের তিনি এই দল থেকে বের হয়ে প্রতিষ্ঠিত করেন ‘নাগরিক নাট্যাঙ্গন’। দলটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে জীবনের শেষ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। ইনামুল হক অভিনীত প্রথম টিভি নাটক মোস্তফা মনোয়ার পরিচালিত ‘মুখরা রমণী বশীকরণ’। তার লেখা প্রথম নাটক ‘অনেকদিনের একদিন’ নির্মাণ করেন আবদুল্লাহ আল মামুন।
 

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
ড. ইনামুল হক,না ফেরার দেশে,অভিনেতা
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close