চবি প্রতিনিধি

  ৩০ জুন, ২০২২

চাঁদা না দেওয়ায় চবি শিক্ষার্থীকে মারধর

ছবি: সংগৃহীত

হাটহাজারীর ফতেপুরে দোকানের চাদা না দেওয়ায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ দুই জনকে মেরে নাক ফাটিয়ে দিয়েছে এক বখাটে।

এই ঘটনায় আহতরা হলেন চবির যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মো. রায়হান (২৫) ও দোকানদার মো. আলমগীর।

অভিযুক্ত বখাটে মো. আরমান (২১) ফতেপুরের মুহাম্মদ মাহমুদের ছেলে। মারধরের ঘটনায় অজ্ঞাত নামে আরও দুজনকে আসামি করা হয়েছে।

বুধবার (২৯ জুন) রাতে ফতেপুর মাইজপট্টির আলাওল দীঘি মসজিদের পাশে জান্নাত এন্টারপ্রাইজ দোকানে এই ঘটনা ঘটে।

মারধরের ঘটনায় ভুক্তভোগী রায়হানের বাবা হাটহাজারী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী মো. রায়হান বলেন, অভিযুক্ত বখাটে আরমান দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় চাঁদাবাজি করে আসছিল। বুধবার রাতে আমাদের মুদি দোকানের সামনে মুদিপণ্যের গাড়ি প্রতি ৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। আমি চাঁদা দিতে আপত্তি করলে বখাটে আরমানসহ আরও কয়েকজন আমাকে মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে আমার গলা চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। দোকানদার আলমগীর আমাকে আমাকে বাঁচাতে আসলে তাকেও লাঠি দিয়ে বেদরক মারধর করে চাঁদাবাজ আরমান।

রায়হান আরও বলেন, আমাদের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন জড়ো হতে দেখে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুনরায় চাঁদা না দিলে আর থানায় কোন অভিযোগ করলে আমাকে আরও মারধর ও খুন করার হুমকি দিয়ে যায়। আমি অভিযুক্ত চাঁদাবাজ আরমানের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি।

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।

প্রতিদিনের সংবাদ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
চাঁদা,চবি,শিক্ষার্থী,মারধর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
close