শেকৃবির শীর্ষ ৩ পদ শূন্য

স্থবির প্রশাসনিক কার্যক্রম

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১৪ | আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩:১৭

মো. আবদুল্লাহ, শেকৃবি

রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) উপাচার্য, উপ-উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ পদ শূন্য এক মাস ধরে। শীর্ষ তিন পদ খালি থাকায় ব্যাহত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম। আটকে আছে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীর গত মাসের বেতন। অন্যান্য কাজেও সমস্যা হচ্ছে। 

এদিকে গত ২ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ডীনের মেয়াদ শেষ হয়। উপাচার্য না থাকায় ডীন নিয়োগ হচ্ছে না। এতে কৃষি অনুষদের একাডেমিক কার্যক্রমও স্থবির হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ সেশনজটে পড়ছেন শিক্ষার্থীরা। 

বেতন আটকে থাকায় দুর্ভোগে পড়ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী। বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মোখছেদুর রহমান বলেন, আমরা মাসের ২৮ বা ২৯ তারিখের মধ্যেই বেতন পেয়ে যাই। কিন্তু ভিসি না থাকায় কবে নাগাদ বেতন পাব, এবার তা জানি না। ৬ সদস্যের পরিবার নিয়ে ধার দেনা করে চলছি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্র জানায়, উপাচার্যের অনুমতি ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বেতন তোলা, ফল প্রকাশ করা, ফাইল অনুমোদন করাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনে জরুরি কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব নয়। 

পিডিএসও/হেলাল