জিন আতঙ্কে স্কুল বন্ধের ঘোষণা

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৭, ২১:৩৮

অনলাইন ডেস্ক

ভোলার লালমোহনে কথিত জিনের আছরে একের পর এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়ার ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এক সপ্তাহে উপজেলার পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়নের পূর্ব কচুয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জিনের আছরে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন এক শিক্ষকসহ ১৯ ছাত্রী।

সর্বশেষ মঙ্গলবার স্কুল চলাকালীন এক শিক্ষিকাসহ একসঙ্গে সাত ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ পরিস্থিতিতে এক সপ্তাহের জন্য স্কুল বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। এর আগে শনিবার পাঁচজন অসুস্থ হয়ে পড়ে। রহস্যজনক এ ঘটনাকে স্থানীয়রা 'জিনের আছর' বলে প্রকাশ করে।

এদিকে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও অসুস্থদের জন্য কবিরাজ ডেকে আনেন। তারা বিদ্যালয়ে জিনের আছর আছে বলে উদ্ভট খবর প্রকাশ করলে ওই বিদ্যালয়সহ পুরো এলাকার শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

খবর শুনে ইউএনও মো. শামছুল আরিফ ও উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। লালমোহন হাসপাতালের একটি টিম মঙ্গলবার বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছে।

ইউএনও মো. শামছুল আরিফ জানান, গ্রামের লোকজন জিন-ভূতের কথা বললেও আক্রান্তরা সম্ভবত অপুষ্টির শিকার। যার কারণে তারা দুর্বল হয়ে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছে।  

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সন্তোষ কুমার সরকার জানান, মানসিক সমস্যা ও অপুষ্টির কারণে এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগ নজরদারির মধ্যে রেখেছে।

পিডিএসও/রিহাব