এবার বাগমারায় ২৬ সাপ!

প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৭, ১১:৩৬ | আপডেট : ১৪ জুলাই ২০১৭, ১৫:২৯

অনলাইন ডেস্ক

এবার রাজশাহীর বাগমারায় মিললো ২৬টি সাপ। পাওয়া গেছে সাপের ৫৫টি ডিমও। এ ঘটনায় মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলার গণিপুর ইউনিয়নের বাসুবোয়ালিয়া গ্রামের কৃষক কফের আলীর বাড়ির মাটি খুঁড়ে এই সাপ পাওয়া যায়। বিকেল সাড়ে চারটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত সাপ ধরার অভিযান চলে। উদ্ধার হওয়া সাপের মধ্যে ২৫টি বাচ্চা। অন্যটি বড় মা-সাপ। বাচ্চা সাপগুলো মেরে ফেলা হয়েছে। মা-সাপটি জীবিত আছে। উদ্ধার হওয়া ডিমগুলো ভেঙে ফেলা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী কলেজছাত্র আশরাফুল ইসলাম বলেন, গতকাল বিকেলে তার ভাতিজা (কফের আলীর ছেলে) শাহিন ইসলাম বাড়ির পাশে একটি সাপের বাচ্চা দেখতে পায়। চিৎকার শুরু করলে বাড়ির লোকজন এসে সাপের বাচ্চাটি মেরে ফেলে। ঘটনাস্থলের পাশে আরও দুটি সাপের বাচ্চা দেখা যায়। মারার চেষ্টা করলে বাচ্চা দুটি বাড়ির দেয়ালের পাশের গর্তে ঢুকে পড়ে। গর্তের মুখ মাটি দিয়ে বন্ধ করে স্থানীয় শরিফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে ডাকা হয়। তিনি সাপ ধরতে পারদর্শী হিসেবে এলাকায় পরিচিত।

আশরাফুল বলেন, বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ঘটনাস্থলে আসেন শরিফুল। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় গর্ত খোঁড়া শুরু করেন তিনি। গর্তটি কফের আলীর বাড়ির শোয়ার ঘরের মেঝে পর্যন্ত বিস্তৃত থাকায় সেখানেও খোঁড়া হয়। গর্ত খুঁড়ে ২৫টি সাপের বাচ্চা, ১টি মা-সাপ ও ৫৫টি ডিম পাওয়া যায়। মা-সাপটি মাটির হাঁড়িতে করে নিয়ে যান শরিফুল। পরে সাপের গর্ত বন্ধ করে দেয়া হয়। সাপের মৃত বাচ্চা ও ভেঙে ফেলা ডিম মাটিচাপা দেয়া হয়। সাপগুলো গোখরা জাতের বলে তার কাছে মনে হয়েছে।

বাড়ির মালিক কফের আলী বলেন, এতগুলো সাপ উদ্ধার হওয়ায় তারা আতঙ্কে আছেন। ভয়ে তারা নিজেদের বাড়ি ছেড়ে প্রতিবেশীর বাড়িতে রাত কাটিয়েছেন। স্থানীয় লোকজন বলছে, পুরো পাড়াতেই এখন সাপের আতঙ্ক বিরাজ করছে। পাড়ার লোকজন ঘরবাড়ির গর্তগুলো ইট ও মাটি দিয়ে বন্ধ করে দিচ্ছে।

পিডিএসও/হেলাল​​