ধামরাইয়ে ঈদের আনন্দে নৌকায় বেড়াতে গিয়ে ২ বোনের মৃত্যু

প্রকাশ : ০১ আগস্ট ২০২০, ২২:১২ | আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২০, ২২:৪০

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

ঢাকার ধামরাইয়ে ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের মান্দারচাপ গ্রামের ঈদের আনন্দে নৌকা দিয়ে বেড়াতে গিয়ে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানাগেছে।

শনিবার বিকাল ৫ টার দিকে মান্দারচাপ এলাকায় নৌকা দিয়ে ঘুরতে গিয়ে নৌকা ডুবে দুই বোনের মৃত্যু হয়। নিহত সিফা আক্তার (১২) ও চাচাতো বোন মীম আক্তার (১১) তারা ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী দুই বোন মারা যায়। বাকিরা চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধামরাই উপজেলার স্থাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নুর রিফফাত আরা স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, আজ শনিবার বেলা ৫টার সময় মান্দারচাপ গ্রামের ৫ ছাত্রী ঈদের আনন্দ করতে নৌকা নিয়ে বেড়াতে যায় পাশের একটি এলাকায় নৌকা ডুবে ৫ ছাত্রী পানিতে পড়ে যায়। মীম ও শিফা আক্তার সাঁতার না জানাতে তারা পানির নিচে পরে মার যায়। বাকি তিনজন কোন রকমে সাঁতার কেটে আহত হয়ে পাড়ে চাপে।

এই ঘটনায় এলাকার লোকজন নৌকা নিয়ে এগিয়ে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে দ্রুত ধামরাই সরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসে। এই সময় মীম ও শিফা আক্তারকে মৃত বলে ঘোষণা করে কর্তব্যরত ডাক্তার। বাকি তিনজনকে চিকিৎসা দিলে তারা সুস্থ্য হয়ে উঠে। এই বিষয়ে ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ শাহআলম বলেন, মান্দারচাপ গ্রামে নৌকা নিয়ে বেড়াতে গিয়ে ৫ স্কুলছাত্রী পানিতে পড়ে যায় এমন খবর পেয়ে দ্রুত লোকজন নিয়ে তাদের উদ্ধার করে ধামরাই সরকারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে মীম ও শিফা দুই বোনকে মৃত বলে ঘোষণা করে ডাক্তার বাকিদের চিকিৎসা দিলে তারা ভাল হয়।

এই বিষয়ে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের মান্দারচাপ গ্রামে নৌকা নিয়ে বেড়াতে গিয়ে ৫ স্কুলছাত্রী পানিতে পড়ে আহত হয় খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছিয়ে আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে ৫জনের মধ্যে মীমও শিফা আক্তরের মৃত হয়। বাকি তিনজন সুস্থ্য হয়ে বাড়ী যায়। পরে লাশ দুটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এই বিষয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ে করা হবে বলে জানান।