কালিয়াকৈরে বাসাবাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ, দালালচক্র কোটিপতি

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০২০, ১৭:৪০ | আপডেট : ০৭ জুলাই ২০২০, ১৮:০৩

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের কালিয়াকৈর এলাকায় বাসাবাড়িতে রয়েছে অসংখ্য অবৈধ গ্যাস সংযোগ। স্থানীয় দালালচক্র ও তিতাস গ্যাস কোম্পানি চন্দ্রা জোনাল অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজসে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আবার বিচ্ছিন্ন অবৈধ গ্যাস সংযোগ নতুন করে দিয়ে দালালচক্র হয়েছে কোটিপতি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার সফিপুর পশ্চিমপাড়া, উত্তরপাড়া, পল্লীবিদ্যূৎ, চন্দ্রা, মৌচাক, রাখালিয়াচালা এলাকায় বাসাবাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ রয়েছে। আবার অনেক বিল্ডিংয়ের মালিক একটি চুলার অনুমোদন নিয়ে ১০-১৫টি অবৈধ চুলার সংযোগ দিয়ে বাসাবাড়ি ভাড়া দিচ্ছে।

মৌচাক শিল্পাঞ্চলের কামরাঙ্গা চালা এলাকায় ২০১৩ সাল থেকে ইউনুছ ভান্ডারী প্রতিটি গ্রাহকের কাছ থেকে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা নিয়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়। এ সময় ওই এলাকার আব্দুল আজিজের দুটি গ্যাসের চোলা, আলাউদ্দিনের ৪টি, রাজ্জাকের ৮টি, মজিবুরের ৪ টি ও ইউনুছ ভান্ডারী ৩টিসহ দুই শতাধিক অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহার করে আসছে। জামতলা এলাকায় আবুল হোসেন এর পাঁচতলা বিশিষ্ট বাড়িতে প্রতি তলায় অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ নিয়ে দীর্ঘদিন ব্যবহার করা হচ্ছে। 

অপরদিকে সফিপুর আহম্মদ নগর এলাকার সারোয়ার হোসেনের বাড়িতেও পাঁচতলা বিশিষ্ট বিল্ডিংয়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়েছে। তবে ওই বাড়ির মালিক দীর্ঘদিন ধরে চুরাই গ্যাস নিয়ে বাসাবাড়িতে ব্যবহার করছে। 

সফিপুর এলাকার বৈধ গ্যাস ব্যবহারকারী গ্রাহক সফিকুল ইসলাম ও মৌচাক এলাকার বাবুল হোসেন জানান, এলাকায় অনেক অবৈধ গ্যাস সংযোগ নেয়ার কারণে বৈধ গ্যাস ব্যবহারকারীদের মাঝে মধ্যেই দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। অভিলম্বে সকল অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিছিন্ন করার দাবী জানায় তারা।

তিতাস গ্যাস  ট্রান্সমিশন কোম্পানির চন্দ্রা জোনাল অফিসের ম্যানেজার মামুনুর রহমান জানান, উপজেলার যে সকল এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ রয়েছে তা অভিযান চালিয়ে উচ্ছেদ করা হবে। এ রকম কোন এলাকার অবৈধ গ্যাস সংযোগের খবর পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিডিএসও/এসএম শামীম