করোনা আক্রান্ত বাবার চিন্তায় কিশোরী মেয়ের আত্মহত্যা

প্রকাশ : ২৯ মে ২০২০, ২০:১৭ | আপডেট : ২৯ মে ২০২০, ২০:২৭

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি
প্রতীকী ছবি

একদিকে প্রবাসী বাবার দুটি কিডনি বিকল, অপরদিকে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। লকডাউনের কারণে বেকার হয়ে বসে আছেন। ঠিকমতো খাওয়া পাচ্ছেন না, তার উপর চিকিৎসা করাবেন কি দিয়ে? তাছাড়া বাড়িতেও পরিবারের সবাই কষ্টে আছেন।

এমন চিন্তায় শরীরে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে কিশোরী মেয়ে নাসরিন আক্তার চাঁদনী (১৬)। শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকালে নিজ গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

চাঁদনী চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের কাতার প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের ছোট মেয়ে। সে চলতি বছর ওই ইউনিয়নের সপ্তগ্রাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, চাঁদনীর বাবা আনোয়ার কাতার থাকেন। তিনি করোনা আক্রান্ত এবং তার দুটি কিডনিও অচল। তিনি সেখানে খুব কষ্টে আছেন। এ অবস্থায় বাড়িতে ফোনও করতে পারছেন না। ৩/৪ দিন পর একবার কথা বলেন। 

এদিকে বাড়িতে সরকারি ত্রাণ সহায়তায় তাদের পরিবারটি চলে। সম্প্রতি সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার ২৫০০ টাকা পেয়েছে। বাবার খুবই আদরের মেয়ে ছিল চাঁদনী। বাবা কষ্ট পাচ্ছেন কাতারে আর দেশে পরিবার। এমন চিন্তায় হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে সে।

বৃহস্পতিবার বিকালে নিজ ঘরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে চাঁদনী। এ সময় ঘরে কেউ ছিল না। পরে বাড়ির লোকজন তার ডাকচিৎকার শুনতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে চাঁদনীর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে রেপার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এইচ.এম সোয়েব আহমেদ চিশতী বলেন, আগুনে চাঁদনীর শরীরের প্রায় ৮০ ভাগ পুড়ে যায়।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন রনি জানান, চাঁদনীর গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার খবর পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

পিডিএসও/হেলাল