৪ বার নমুনা পরীক্ষার পর জানা গেল করোনা পজেটিভ

প্রকাশ : ২৭ মে ২০২০, ২১:৩৪ | আপডেট : ২৭ মে ২০২০, ২১:৪৫

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

গত একমাসে ঢাকা ও খুলনায় চারবার নমুনা পরীক্ষার পর এক নারীর করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। টানা তিনবার ওই নারীর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও চতুর্থবার পজেটিভ এসেছে। বুধবার বিকেলে সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে ঘোষণার পর ওই নারীর বাড়িসহ আশপাশের ১০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

ওই নারী (৩৫) সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নের তিলকুড়া গ্রামের গোলাম হোসেনের স্ত্রী। বর্তমানে তিনি নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। 

দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. বিপ্লব মন্ডল জানান, গত একমাস আগে ওই নারী ঢাকার গাজীপুর ছিলেন। সেখানে তার করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। সেসময়ে ঢাকাতে নমুনা পরীক্ষা করান। কিন্তু রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর তিনি গাজীপুর থেকে দেবহাটার তিলকুড়া গ্রামে নিজের বাড়িতে ফেরেন। ১০ মে তার নমুনা সংগ্রহ করে দ্বিতীয় বারের মতো খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। তখনও ফলাফল নেগেটিভ আসে।

তিনি বলেন, এদিকে ওই নারীর শরীরে উপসর্গ বাড়তে থাকায় ১৩ মে নমুনা সংগ্রহ করে পুনরায় আবারও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। সেখান থেকে ১৮ মে পুনরায় ফলাফলে জানানো হয় রিপোর্ট নেগেটিভ। পরবর্তীতে ওই নারীর নমুনা পাঠানো হয় আইইডিসিআরে। সেখান থেকে পাওয়া রিপোর্টে বুধবার বিকেলে জানানো হয়েছে ওই নারীর করোনা পজেটিভ। 

দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরিন বলেন, ওই নারীর বাড়িসহ আশপাশের ১০টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। 

এছাড়া সাতক্ষীরা সদরে একজন নারীর করোনা রিপোর্ট খুলনায় নেগেটিভ ও আইইডিসিআরে পজেটিভ এসেছে। কলারোয়া উপজেলায় দুইজন নতুন করোনা পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, সদরের বল্লীতে কলেজছাত্রের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয় ৯ দিন আগে। ওই ছাত্রের মায়ের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয় খুলনায়। তবে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। সেই নমুনা পাঠানো হয় আইইডিসিআরে। সেখানে তার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়ত জানান, বুধবার পাওয়া রিপোর্টে নতুন করে চারজনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে দেবহাটা ও সাতক্ষীরা সদরের নারীর খুলনায় রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও আইইডিসিআরে পজেটিভ এসেছে। এছাড়া কলারোয়া উপজেলাতে দুইজন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। 

তিনি বলেন, সাতক্ষীরায় করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ৪২ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন তিন জন। বাকিরা আসোলেশনে চিকিৎসাধীন। সবার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

পিডিএসও/হেলাল