আল্লামা জুবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় মানুষের ঢল

প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০২০, ১৩:৫৯ | আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০২০, ১৫:৩৩

অনলাইন ডেস্ক

দেশবরেণ্য মুফাসসিরে কুরআন ও প্রখ্যাত ইসলামি বক্তা, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজার নামাজ ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার সকাল ১০টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জামিয়া রাহমানিয়া বেড়তলা মাদরাসা প্রাঙ্গণে তার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নামাজের ইমামতি করেন জুবায়ের আহমদ আনছারির দ্বিতীয় ছেলে মাওলানা আসাদুল্লাহ গালিব। পরে বেড়তলা মাদরাসা প্রাঙ্গণে তাকে দাফন করা হয়।

এদিকে, করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন পরিস্থিতিতেও মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনছারির জানাজার নামাজে লাখো মানুষের সমাগম ঘটে। সকাল থেকেই লকডাউন ও বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বি-বাড়িয়ার বেড়তলায় তার ছাত্র, ভক্ত ও আলেম-উলামার ঢল নামে। জনতার স্রোত দেখে স্থানীয় প্রশাসনও লকডাউন আইন কয়েক ঘণ্টার জন্য শিথিল করে দিতে বাধ্য হন।

জানাজার নামাজে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা নুরুল ইসলাম ওলিপুরী, শায়েখ সাজিদুর রহমান, মামুনুল হক, মাহফুজুক হক, হাসান জামিল, খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, খোরশেদ আলম কাসেমি, জুনাঈদ আল হাবিব, শায়েখে চরমোনাই , মুফতি মুবারকুল্লাহ, সিরাজুল ইসলাম মিরপুরী রাফি বিন মনির, ইসমাইল নুরপুরীসহ দেশের বরেণ্য উলামা ও ইসলামি ব্যক্তিত্বরা।

উল্লেখ্য, গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫.৪৫ মিনিটে বিবাড়িয়ার মার্কাজপাড়ার আনছারি মঞ্জিলে হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনছারি ইন্তেকাল করেন।

দেশ-বিদেশে খ্যাতিসম্পন্ন ইসলামি সুবক্তা হাফিজ মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনছারী দীর্ঘদিন থেকে  দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। তিনি দেশ-বিদেশে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। চিকিৎসকদের পরামর্শমতে তিনি মার্কাজপাড়ার আনছারি মঞ্জিলে গত কয়েক মাস থেকে অবস্থান করছিলেন।

অসুস্থতার কারণে তিনি সকল ইসলামি প্রোগ্রাম বাতিল করে দিয়েছিলেন। গত কয়েক দিন ধরে শারিরীক অবস্থা খারাপ থাকার পর গতকাল বিকেল ৫.৪৫ মিনিটে তিনি নিজ বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে  জুবায়ের আহমদ আনছারীর বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। 

পিডিএসও/তাজ