চকরিয়ায় বেতন তুলতে যাওয়ার পথে শ্রমিককে গুলি করে হত্যা

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ১৯:১৬

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সোমবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের উপজেলার মালুমঘাট রিংভং নতুন মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় গুলিবিদ্ধ এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, বেতন তুলতে যাওয়ার পথে মো.লোকমান (৩০) নামের এই শ্রমিককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত লোকমান কুতুবদিয়া উপজেলার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের কালারমারপাড়া এলাকার আবদুল মালেকের ছেলে। সে চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামার শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো।

স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানায়, ভোর সাড়ে ৪টার দিকে এলাকার মানুষ মসজিদে নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় একটি গুলির শব্দ শোনেন। এ সময় মুসল্লিরা মহাসড়কের দিকে তাকালে একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাস মহাসড়ক হয়ে উত্তর দিকে চলে যেতে দেখেন। পরে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ সড়কের পাশে জঙ্গলে পড়ে থাকতে দেখেন। খোঁজ নিয়ে জানতে পারে, লোকমান চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মালুমঘাটস্থ তার শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।

নিহত লোকমানের স্ত্রী রিফা আকতার জানান, তার স্বামী লোকমান চট্টগ্রাম বন্দরে শ্রমিকের কাজ করতেন। বেতনের টাকা তুলতে ভোর ৪টা ১৫ মিনিটের দিকে শ্বশুরবাড়ি (বাপের বাড়ি) থেকে বের হয়। পরে সাড়ে ৪টার দিকে দুর্বৃত্তের গুলিতে মারা গেছেন বলে শুনতে পাই। তবে কি কারণে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে সে বিষয়ে তিনি কিছু জানাতে পারেননি। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ রফিক বলেন, রিংভং নতুন মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় গুলিবিদ্ধ এক যুবকের মরদেহ দেখতে পেয়ে আমাকে অবহিত করেন কয়েকজন পথচারী। তাৎক্ষণিক বিষয়টি থানার ওসিকে জানানোর পর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। লাশের পকেটে থাকা মুঠোফোনের মাধ্যমে তার বাড়ি কুতুবদিয়া বলে শনাক্ত করা হয়। পরে মালুমঘাটস্থ তার শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছিল বলে জানা যায়।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. হাবিবুর রহমান জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত চলছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

পিডিএসও/তাজ