স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে গেলে পুরস্কার

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ১৪:৪৭ | আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ১৫:১২

চারঘাট (রাজশাহী) প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধে অঘোষিত লকডাউন রাজশাহীতে। বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন। তবু বাইরের জেলা থেকে গ্রামে ফিরে আসছেন অনেকে। খবর পেলে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করছে পুলিশ।

তবে রাজশাহীর চারঘাট ও বাঘা উপজেলায় তাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আর যারা স্বেচ্ছায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আসবেন, তাদের পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। রোববার দিবাগত রাতে ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এমন ঘোষণা দেন তিনি।

এর আগে বিকালে পার্শ্ববর্তী পুঠিয়া উপজেলায় ঢাকাফেরত এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়। রাজশাহী জেলা তো বটেই, গোটা বিভাগের মধ্যে তিনিই প্রথম করোনা শনাক্ত ব্যক্তি। তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আলম।

ফেসবুকে তিনি লেখেন, আক্রান্ত এলাকা থেকে আগতদের সোমবার থেকে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে বাধ্যতামূলক রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি আমরা চারঘাট ও বাঘায়। প্রাতিষ্ঠান নির্দিষ্ট করা হয়েছে। প্রয়োজনে তিনবেলা খাবার সরবরাহ করবো। নারীদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে অথবা বিশেষ ব্যবস্থায় তারা নিজের বাসাতেই থাকবেন।

প্রতিমন্ত্রী লেখেন, আশা করি সবাই বুঝবেন যে, সার্বিক ভালোর জন্যই এই সিদ্ধান্ত। সবার সহযোগিতা কামনা করছি। যারা ফিরেছেন তাদের তালিকা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাধ্যমেই করেছি। কেউ বাকি থাকলে তাদের অনুরোধ করবো. স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসার জন্য। আমার ব্যক্তিগত তরফ থেকে ভবিষ্যতে তাদের জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকবে। তবে বাইরে থেকে এসেও কোয়ারেন্টাইনে না গেলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণেরও হুশিয়ারি দেন শাহরিয়ার আলম।

পিডিএসও/হেলাল