টঙ্গীতে গোপনে কাজ চলছে কারখানায়, ঝুঁকিতে শ্রমিকরা

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১৮:৪৬ | আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১৮:৫৬

টঙ্গী(গাজীপুর) প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে গাজীপুরের টঙ্গীতে অনেক কারখানায় খোলা রেখে শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করানো হচ্ছে। 

তবে, কোনো কোনো কারখানায় জরুরি প্রয়োজন ছাড়াই কাজ করানোর অভিযোগ করেছেন শ্রমিকরা। 

শিল্প পুলিশের হুঁশিয়ারিকে তোয়াক্কা না করেই অযৌক্তিকভাবে কারখানা খোলা রাখা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যখন প্রায় সকল কারখানা বন্ধ রয়েছে । তারপরও শ্রমিকরা আসছেন কর্মস্থলে। দল বেধে কারখানায় আসায় স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ছে বলেও মনে করে অনেক শ্রমিক।

এমনি একজন শ্রমিক রাসেল। কাজ করে একটি পোশাক কাখানায়। তিনি বলেন, আমাদের করোনা ঝুঁকি থেকেই গেল।আমরা বাধ্য হয়েই কাজে যোগ দিচ্ছি।

অন্যান্য শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়ে অভিযোগ জানান, জরুরি পণ্য প্রস্তুত ছাড়াই চালু রাখা হয়েছে উৎপাদন কাজ। আবার পুলিশ ও সাংবাদিকের উপস্থিতির কারণে ছুটির পরও বের হতে দেয়া হচ্ছে না শ্রমিকদের।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ঝিনু মার্কেট এলাকায় দি মার্সেন্ট লিঃ, ফকির মার্কেটে এলিট প্রিন্টিং লিঃ, বিনিময় টেক্সটাইল মিলস, পাঠান পাড়া সজিব টেক্সটাইল, বিসিক এলাকায় শাপলা ফুট লিঃ,শিংবাড়ি এলাকায় জয়নাল নীট কম্পোজিট কারখানা চালু রয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে শিল্প পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার(টঙ্গী জোন) মো.এস আলম জানান, পিপিই তৈরি ও ঔষধ উৎপাদন করছে এমন কিছু কারখানা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য চালু রাখতে পারবে। জরুরি না হলে কারখানা বন্ধের নির্দেশ রয়েছে।

তবে জরুরি প্রয়োজনে কারখানা চালু রাখলে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে চালানোর কথা থাকলেও মানছেন না কারখানা কতৃপক্ষ।