প্রতিদিনের সংবাদের নবীগঞ্জ প্রতিনিধিকে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান

প্রকাশ : ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮:৫৭

নিউজ ডেস্ক

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের সংবাদ প্রচার করায় দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ এর স্থানীয় প্রতিনিধি শাহ সুলতান আহমেদকে ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন ও তার লোকজন। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে হামলার শিকার হন সাংবাদিক এম মুজিবুর রহমান ও বুলবুল আহমেদ। বুধবার বিকেলে আউশকান্দি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুনের নেতৃত্বে অস্ত্রশস্ত্রসহ একদল সন্ত্রাসী প্রতিদিনের সংবাদের প্রতিনিধি ও নবীগঞ্জ সাংবাদিক ফোরামের সাবেক সভাপতি শাহ সুলতান আহমেদের ওপর এ হামলা চালায়। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুনও ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে সাংবাদিককে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন। এ সময় তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে সাংবাদিক মুজিবুর রহমান, সাংবাদিক বুলবুল আহমেদসহ আরও পাঁচজন আহত হন।

স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি সরকারি ত্রাণ বিতরণ করেন ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন। কিন্তু ১০ কেজি চাল দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি দেন ৫ কেজি করে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে 'আসুন অসহায় দিনমজুরদের মনের কথা শুনি' শিরোনামে এক লাইভে সাধারণ মানুষের বক্তব্যসহ অনিয়মের বিষয়টি তুলে ধরেন সাংবাদিক সুলতান। এরপর ২০/২৫ জন সন্ত্রাসী নিয়ে অস্ত্রসহকারে আউশকান্দি বাজারে শাহ সুলতান আহমেদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানা হয়। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুনও ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন সুলতানকে। 

এ খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করতে গেয়ে দৈনিক আমার সংবাদের প্রতিনিধি মুজিবুর রহমান, চ্যানেল এসএ'র প্রতিনিধি বুলবুল আহমেদসহ অরো পাঁচজন আহত হয়েছেন। স্থানীয় লোকজন শাহ সুলতানকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। 

নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ পাল জানান, আমি খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। এ ব্যাপারে উভয় পক্ষের সাথে আলাপ-আলোচনা চলছে। ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন 'পরে কথা বলব'।