বাড়িতে অজ্ঞান পার্টির মেশানো খাবার খেয়ে শিক্ষকের মৃত্যু

প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:০০ | আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:১২

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
প্রতীকী ছবি

অজ্ঞান পার্টির মেশানো খাদ্যে বিষক্রিয়ায় সাতক্ষীরায় আশুতোষ সাধু নামের এক শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে সদর উপজেলার বাবুলিয়ার শ্রীপুরে তার নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আশুতোষ সাধু সদর উপজেলার আগরদাড়ী ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের মৃত. বিষন্নপদ সাধুর ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ঘরের জিনিসপত্র লুটপাট করার জন্য গত রোববার রাতে অজ্ঞানপার্টির সদস্যরা শিক্ষক আশুতোষ সাধুর বাড়িতে এসে অজান্তে খাদ্যের পাত্রে বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য মিশিয়ে দেয়। ওই খাদ্য খেয়ে রাত ৯টার দিকে আশুতোস সাধু ও তার স্ত্রী ঝর্না সাধু ও তার মেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন।

এরপর রাত ১১টার দিকে ৪/৫ জন অজ্ঞানপার্টির সদস্য আশুতোষ সাধুর ঘরে প্রবেশ করে তাদের জিনিপত্র লুটপাট করার সময় আশুতোষ সাধুর স্ত্রী ঝর্না তাদের দেখতে পান। এক পর্যায়ে আশুতোষ সাধুর স্ত্রী ঝর্না লুটপাটে বাধা দিলে তার সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি হয়।

তারা আরও জানান, এরপর আশুতোষের স্ত্রী ঝর্ণা দেখতে পান তার স্বামী ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় তার মুখ দিয়ে ফেনা বের হচ্ছে। এর কিছুক্ষণ পর অসুস্থ হয়ে পড়েন আশুতোষ সাধুর স্ত্রী ঝর্ণা ও তার মেয়ে। রাতেই তাদের সবাইকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আশুতোষ সাধুর অবস্থার অবনতি হলে পরদিন সোমবার তাকে খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর রাত ২টার দিকে মারা আশুতোষ সাধু। বর্তমানে স্ত্রী ও মেয়ে সুস্থ রয়েছে।

ঘটনার বিষয়ে আগরদাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মজনু মালি জানান, অজ্ঞান পার্টির মেশানো খাদ্যে বিষক্রিয়ায় আশুতোষের মৃত্যু হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ঘটনাটি শুনেছি। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পিডিএসও/তাজ