পায়রায় ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সাগর উত্তাল

প্রকাশ | ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৩৫

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে পায়রা সমুদ্রবন্দর এলাকায় ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এর প্রভাবে বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে হালকা-মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

সমুদ্র উত্তাল থাকায় গভীর সমুদ্রে অবস্থানরত অধিকাংশ মাছ ধরা ট্রলার নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য মৎস্য বন্দর আলীপুর-মহিপুরের পোতাশ্রয় শিব বাড়িয়া নদীসহ বিভিন্ন নদীতে অবস্থান নিয়েছে। পায়রা বন্দরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে। টানা বৃষ্টির কারণে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়ে পড়েছে।

সেইসঙ্গে পটুয়াখালী-ঢাকা নৌ-রুটসহ অভ্যন্তরীণ রুটের লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কায় রয়েছে কৃষকরা। একইভাবে শীতকালীন সবজিচাষীরা রয়েছে সর্বোচ্চ ক্ষতির আশঙ্কায়।

এদিকে, গভীর সমুদ্র থেকে নিরাপদ আশ্রয়ে ফেরার পথে কুয়াকাটা ঝাউ বাগান এলাকার কাছাকাছি আসলে উত্তাল ঢেউয়ের ঝাপটায় এফবি মা কুলসুম নামের ট্রলার থেকে বেলাল (৪০) নামের এক জেলে সাগরে পরে নিখোঁজ রয়েছে। বেলাল পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ থানার লক্ষীরহাট গ্রামের কুরবান আলীর পুত্র বলে জানা গেছে।

সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহত উৎসব রাস মেলাকে ঘিরে কুয়াকাটায় রয়েছে ব্যাপক পূণ্যার্থী,ভক্ত ও দর্শনার্থীদের উপস্থিতি। সমুদ্রে সাতার কাটাসহ এদের চলাচলে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশ ও নৌ-পুলিশ। 

কলাপাড়া উপজেলা ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতির সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান বলেন, ঘুর্ণিঝড়টি পায়রা বন্দর থেকে ৬৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। ৬৪ কিলোমিটরের মধ্যে এর গতিপথ ৯০-১১০ কিলোমিটার।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনিবুর রহমান জানান, সকল আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জনগণকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার জন্য মাইকিং করে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। 

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে পূর্ববতী ও পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন সকল উপজেলা প্রশাসনকে নিয়ে জরুরি সভা করেছে। সভায় সিপিপিসহ উপজেলা প্রশাসনকে সর্বোচ্চ সর্তক অবস্থায় থাকতে বলা হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ