বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে ৩ নাবিকের মৃত্যু

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর ২০১৯, ২১:৪৯

অনলাইন ডেস্ক

সেন্টমার্টিন দ্বীপের কাছে ডুবে যাওয়া একটি ফিশিং ট্রলারের তিন নাবিকের লাশ উদ্ধার করেছে নৌবাহিনী।

গভীর সমুদ্রে সোমবার মধ্যরাতে একটি বাণিজ্যিক জাহাজের ধাক্কায় ডুবে যায় এফবি মীন সন্ধানী নামের ফিশিং ট্রলারটি।

এতে ক্যাপ্টেন ও চিফ ইঞ্জিনিয়ার মিলিয়ে ২৪ জন নাবিক ছিলেন বলে জানান এফবি মীন সন্ধানীর মালিক প্রতিষ্ঠান এম এম অ্যালায়েন্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপক শফিকুর রহমান।

বুধবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “দুর্ঘটনার পর নৌবাহিনীর জাহাজ সমুদ্র জয় ঘটনাস্থলে যায়। স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় ১২ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া বুধবার দুপুর পর্যন্ত ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

নৌবাহিনী নিখোঁজ বাকি নয় জেলেকে উদ্ধারে তৎপরতা চালাচ্ছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

নৌবাহিনী ছাড়াও কোস্ট গার্ড সদস্যরা উদ্ধার অভিযানে সহযোগিতা করছে।

শফিকুর গণমাধ্যমকে বলেন, এফভি মীন সন্ধানী গত ৩১ অক্টোবর মাছ ধরার জন্য গভীর সমুদ্রে গিয়েছিল।

এদিকে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে পরিণত হয়েছে গভীর নিম্নচাপে, যা ঘূর্ণিঝড়ে রূপ পেতে যাচ্ছে বলে আবহাওয়াবিদদের ধারণা।

বুধবার সকাল ৯টায় নিম্নচাপটি কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছিল। ওই সময় নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছিল।

সাগর উত্তাল থাকায় আপাতত চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।