কক্সবাজারে গুলি করে আ.লীগ নেতার ঘের দখল : যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

প্রকাশ : ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৩৪

কক্সবাজার প্রতিনিধি

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুরে আওয়ামী লীগ নেতাদের চিংড়ি ঘের দখল, চাঁদা দাবি, মাছ লুট, গুলি বর্ষণসহ ৪ জনকে আহতের ঘটনায় জড়িত হাইব্রিড যুবলীগ নেতা নুরুল আবছারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার ভোরে ইসলামপুর উত্তর নাপিতখালী গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় উদ্ধার করা হয়েছে একটি চোরাই মোটরসাইকেল।পরে দুপুরে এই নব্য যুবলীগ নেতাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তার কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন করেছে পুলিশ।

কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও উপদেষ্টা হাজী মমতাজ আহম্মদ জানান, ইসলামপুর ইউনিয়নের পশ্চিমে গোল্ডেন ফার্ম প্রাইভেট লিমিটেড নামের স্বত্ত্ব দখলীয় চিংড়ি ঘের। গোল্ডেন ফার্ম নামের ঘেরটি তাদের ফার্মের সদস্যদের মালিকানাধীন। তাছাড়া ফার্মের খতিয়ানভুক্ত এবং প্রতি মৌসুমে সরকারকে খাজনা আদায় করে দীর্ঘ ২০ বছর ধরে মৎস্য চাষ করে আসছেন তারা।

চলতি মৌসুমেও হাজী শের আলী ও হাজী শাহ আলম নামের দুই ব্যক্তিকে ইজারা দেয়া হয়েছে গোল্ডেন ফার্মটি। এরইমধ্যে ঘেরটির প্রতি লোলুপ দৃষ্টি পড়ে স্থানীয় গুটি কয়েক ভূমিদস্যু ও দখলবাজ ও চাঁদাবাজ চক্রের। তারা বেশ কয়েকবার চিংড়ি ঘেরে এসে চাঁদা দাবি করে এবং চাঁদা না দিলে জোরপূর্বক জবর দখলের হুমকি দেয়।

গত সোমবার অক্টোবর বিকাল আড়াইটার দিকে যুবলীগের কিছু দুর্বৃত্ত হানা দেয়। তারা এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করে ঘেরটি দখলে নেয় তারা। ঘেরে আহরিত মাছ, নগদ টাকা ও বিভিন্ন সরঞ্জামসহ ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করা হয়। এসময় দুর্বৃত্তদের মারধরে ইসলামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদ রমজান আলী সরকারসহ ৪ জন আহত হয়। আহতদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতা ও গোল্ডেন ফার্ম এর চেয়ারম্যান হাজী মমতাজ আহম্মদ বাদী হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

কক্সবাজার ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আসাদুজ্জামান জানান, বুধবার ভোরে অভিযান চালিয়ে মামলার আসামি আবছার কামালকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় জব্দ করা হয়েছে একটি চোরাই মোটরসাইকেল। তাকে বুধবার দুপুরে আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান চৌধুরী বলেন, গ্রেফতারকৃত আবছার ইউনিয়ন যুবলীগের হাইব্রিড সাধারণ সম্পাদক। তার কমিটিতে বেশির ভাগ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও শিবির থেকে অনুপ্রবেশ করেছে। তিনি আরও বলেন, ছাত্র ও শিবির থেকে সদ্য যুবলীগে অনুপ্রবেশকারীরা ইসলামপুরে বিভিন্ন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানের জায়গা জমি দখল বেদখলে জড়িয়ে পড়ছে। সম্প্রতি ইসলামপুর ভুমিহীন সমিতি নামের একটি নিবন্ধিত সংগঠনের নতুন অফিস বাজারস্থ অফিস জবর দখল করে যুবলীগের সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে ব্যাপক সমালোচিত হয় যুবলীগ। এরপর আওয়ামী লীগ নেতাদের জায়গা দখলে মেতেছে। অনুপ্রবেশকারীদের এ ধরনের কর্মকাণ্ডে ত্যাগী নেতাকর্মীদের ও দলের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি সৈয়দ আবু মো. শাহজাহান কবির বলেন, মামলার আসামিদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে। গ্রেফতারকৃত আবছারের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের জন্য আদালতে রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ