টঙ্গীতে বাস থেকে ফেলে কলেজছাত্রকে হত্যা, বিক্ষোভ

প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০৩

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি
নিহত শিক্ষার্থী মো. হাবিবুর রহমান

গাজীপুরের টঙ্গীতে ভাড়া নিয়ে কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাসের সহকারী ধাক্কা মেরে বাস থেকে ফেলে দেয় এক কলেজ শিক্ষার্থীকে। এতে তিনি গুরুতর আহত হয়ে মারা গেছেন। এ ঘটনায় পর শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ ও ভাঙচুর করেছেন।

মঙ্গলবার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়াকের টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় ওই শিক্ষার্থীকে হত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত মো. হাবিবুর রহমান (১৯) টঙ্গী সিটি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। সে নোয়াখালী সদর উপজেলার সেলিম মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী আবু নাসের পাভেল জানান, সকালে টঙ্গীর মিলগেট এলাকা থেকে ভিআইপি পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন হাবিবুর। সিট না পাওয়া ও বাস ভাড়া নিয়ে বাসের সহকারীর সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয় হাবিবুরের সঙ্গে। এ সময় নেমে যেতে চাইলে হাবিবুরকে ধাক্কা মেরে বাস থেকে ফেলে দেয় হেলপার। এরপর গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেল চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার একটি হাসপাতালে পাঠালে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় হাবিবুরের।

সহপাঠীর মৃত্যুর খবরে মিলগেট এলাকায় ছুটে যান কয়েকশত শিক্ষার্থী। এ সময় তারা সেখানে কয়েক ঘণ্টাব্যাপী বিক্ষোভ করলে সড়কের দুই পাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। নিহত হাবিবুর মিলগেট এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় পরিবারের সঙ্গে বসবাস করত। তবে এ ঘটনায় বাসচালক কিংবা হেলপার কাউকেই আটক করতে পারেনি পুলিশ।

টঙ্গীপূর্ব থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক জানান, শিক্ষার্থীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শিক্ষার্থীরা। পুলিশ তাদের শান্ত করেছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।

পিডিএসও/তাজ