আবরার হত্যায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে : আইনমন্ত্রী

প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:০৭

নোয়াখালী প্রতিনিধি

আবরার হত্যাকাণ্ডের সাথে যারাই জড়িত থাকুক, তারা যে সংগঠনের হোক না কেন তাদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনা হবে। নোয়াখালীতে নবনির্মিত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে নোয়াখালী জেলা নবনির্মিত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের সামনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সবসময় আন্তরিক। তারই ধারাবাহিকতা আমরা সারা বাংলাদেশে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবনের উদ্যোগ নেয় সরকার। এর ফলে এ অঞ্চলের মানুষের মামলাগুলো আরো দ্রুত নিষ্পত্তি হবে।

এ সময় আইনমন্ত্রী আলোচকদের উত্থাপিত সমস্যাগুলোর দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন এবং হাতিয়ায় দ্রুত একটি আদালতের চকি বসানোর আশ্বাস দেন। এর আগে মন্ত্রী আদালত ভবনের সামনে ফিতা কেটে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।   

   অনুষ্ঠানে নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী -৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, নোয়াখালী -৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ফরিদা খানম এমপি, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব গোলাম সারওয়ার, যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা।

এছাড়া চট্রগ্রাম গণপূর্ত বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোসলেহ উদ্দীন আহাম্মদ, নোয়াখালী  জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস, জেলা পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খায়রুল আনাম সেলিম, নোয়াখালী আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড.বশীর আহমেদ, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ  বি এম জাকারিয়া,জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক বকশিসহ জেলার বিশেষ ব্যক্তিবর্গ ও আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।     

অনুষ্ঠানে বক্তারা নোয়াখালীতে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান। একই সাথে নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস হাতিয়ায় একটি আদালত ভবনের দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান। পাশাপাশি নোয়াখালীতে চলমান মামলাগুলো যেন আরো দ্রুত নিষ্পত্তি ও মাদক মামলাগুলোর ব্যাপারে আরো কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান।

এছাড়া আইনজীবীদের চলাচলের জন্য জেলা কোর্ট ভবন থেকে চিফ জুডিসিয়াল ভবন পর্যন্ত একটি ফ্লাইওভার, একটি বসার যায়গা, ক্যান্টিনসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন।  

পিডিএসও/তাজ