টঙ্গীতে ফাঁস দেওয়া শিশু গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:১৯

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের টঙ্গীতে ভাড়া বাড়ি থেকে এক গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে টঙ্গীর আরিচপুর বউবাজার এলাকার জনৈক মহিউদ্দিন শেখের ৫ তলার বাড়ির ৪ তলায় এ ঘটনা ঘটে। ওই গৃহকর্মীর নাম লাইলি আক্তার (৯)।

টঙ্গী পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) শাহীন মোল্লা নিহতের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় গৃহকর্তা মো.বাদল মিয়া (৩৫) ও তার স্ত্রী পিংকি আক্তারকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলার মিলন নগর থানার মো.হিফজুল মিয়ার মেয়ে লাইলি ২০১৮ সাল থেকে ওই বাসায় কাজ করে। গৃহকর্তার স্ত্রী পিংকি প্রায়ই গৃহকর্মী মেয়েটির ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতেন। বুধবার বিকালে কাজ না করে টিভি দেখায় তাকে লাঠি দিয়ে মারধোর করেন। এ সময় আশপাশের কয়েকজন বাসিন্দা বাসায় চলে আসায় লাইলি রক্ষা পায়।

এর কিছুক্ষণ পর বাসার বাথরুমে লাইলিকে গলায় ওড়না পেঁচানো ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায় গৃহকর্তা বাদল। সেখানে হাসপাতালে থাকা কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার রাতে হিফজুল মিয়া মুঠোফোনে সংবাদ পান যে তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তিনি মুঠোফোনে দাবি করেন, তার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে।
অভিযুক্ত বাদল মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার মোবারক সরর্দারের ছেলে। তিনি স্থানীয় টঙ্গী বাজার এলাকার একজন ব্যবসায়ী।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় গৃহকর্তা ও তার স্ত্রীকে আসামি করে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.কামাল হোসেন ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পিডিএসও/তাজ