উখিয়ায় উদ্ধার করা দেশীয় অস্ত্র ফেরত দিল প্রশাসন

প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:৩৭

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলা থেকে উদ্ধার করা দেশীয় অস্ত্রগুলো কৃষি উপকরণের জন্য তৈরি করায় সেগুলো শেডকে ফেরত দেওয়া হয়েছে।কক্সবাজারের উখিয়ায় স্থানীয় জনগোষ্ঠীর মাঝে গৃহস্থালি সরঞ্জামাদি দেওয়ায় ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম। শুক্রবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিয়ে ব্যাখ্যা দেয় সংস্থাটি।

আইওএম’র ব্যাখ্যায় উল্লেখ করা হয়, কক্সবাজারের উখিয়ায় একটি এনজিও’র স্থানীয় অফিসে গত ৫ সেপ্টেম্বর স্থানীয় প্রশাসনের নিরাপত্তা সংক্রান্ত পরিদর্শনের পরিপ্রেক্ষিতে আইওএম জানাচ্ছে, জাতিসংঘের এই সংস্থাটি দুটি স্থানীয় এনজিওকে প্রান্তিক স্থানীয় জনগোষ্ঠীকে কৃষিকাজসহ নানা দৈনন্দিন কাজের জন্য সহায়তার অংশ হিসেবে কিছু গৃহস্থালি সরঞ্জামাদি দিয়েছিল। এসব সরঞ্জামাদি শুধুমাত্র স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য। এগুলো কোনোভাবে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য নয়।

কিন্তু বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুলভাবে উপস্থাপিত হওয়ায় এটি নিয়ে প্রশাসন, গণমাধ্যম এবং সুশীল সমাজে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে এসব সরঞ্জামাদি ছিল কৃষিকাজে ব্যবহারের। এগুলো শুধুমাত্র স্থানীয় জনগোষ্ঠীকে দেওয়ার জন্য স্থানীয় এনজিওটিকে দেওয়া হয়েছিল। বিষয়টি উখিয়া উপজেলা ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসন খতিয়ে দেখতে পারে। একই সঙ্গে পর্যাপ্ত প্রমাণাদি পাওয়া সাপেক্ষে জব্দ করা সরঞ্জামাদি পুনরায় এনজিওটিকে ফেরত দেওয়া হোক।

রোহিঙ্গা সংকটের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়দের মধ্যে বিতরণের বৈধতা থাকায় সেগুলো ফেরত দেওয়া হয়েছে বলে জানান কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে শেডের কার্যালয় থেকে এই অস্ত্রগুলো জব্দ করে উপজেলা প্রশাসন। জব্দ করার পর উখিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফখরুল ইসলাম বলেছিলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে এগুলো বিতরণের অনুমোদন রয়েছে কিনা তার অনুকূলে নথিপত্র দেখাতে সংস্থাটির সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দেখাতে ব্যর্থ হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পরে শেড কর্তৃপক্ষ অস্ত্রগুলো বিতরণের বৈধতার অনুমতিপত্র উপস্থাপন করে। তারা জানায়, আইওএম’র অর্থায়নে এসব সরঞ্জমাদি মজুদ করা হয়েছিল। মূলত এগুলো রোহিঙ্গা সংকটের কারণে উখিয়ার রাজাপালং ও জালিয়াপালং ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় লোকজনের মাঝে বিতরণের কথা ছিল।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, মাঠ পর্যায়ে প্রকল্প বাস্তবায়নের আগে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত না করায় এ ভুল বোঝাবুঝির ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে শেডকে ভবিষ্যৎ কার্যক্রম চালানোর ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ