১১ দফা দাবিতে নৌ ধর্মঘট

প্রকাশ : ২৪ জুলাই ২০১৯, ১০:২৭ | আপডেট : ২৪ জুলাই ২০১৯, ১০:৫৩

অনলাইন ডেস্ক

ভাতা বাড়ানো, শ্রমিক নির্যাতন ও চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১১ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট পালন করছে নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। এতে বন্ধ রয়েছে ঢাকা-বরিশাল ও ঢাকা-চাঁদপুর রুটের লঞ্চ চলাচল।

বুধবার ভোর থেকে চাঁদপুর-ঢাকা ও চাঁদপুর-নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন নৌরুটের যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। যাত্রীরা টার্মিনালে লঞ্চ না পেয়ে দুর্ভোগে পড়েন।

এদিকে, বরিশালেও চলছে নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি। আজ ভোর থেকে বরিশাল নদীবন্দর ত্যাগ করেনি কোনো ধরনের যাত্রী ও পণ্যবাহী নৌযান। চালক ও শ্রমিকরা জানান, দাবি মেনে নেওয়া না হলে অনির্দিষ্টকাল নৌযান ধর্মঘট চলবে। এর ফলে বরিশাল নদীবন্দরে নৌ যাত্রীরা পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে।

সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে সব রুটের নৌযান চলাচল। অনেক নৌযান বরিশাল নদীবন্দর থেকে সরিয়ে নদীর বিভিন্ন স্থানে নোঙর করে রাখা হয়েছে। ফলে বরিশাল থেকে ভোলা-লক্ষীপুর-বরগুনা-মেহেন্দীঞ্জ-হিজলাসহ বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা পড়েছেন ভোগান্তিতে। নৌবন্দরে এসে বিকল্প পথ না থাকায় অনেক যাত্রী ফিরে যান। 

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাহ আলম ভুইয়া জানান, শ্রমিকদের ১৫ দফা দাবি অমীমাংসিত থাকায় এবং ভাতা বাড়ানো, নৌপথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও শ্রমিক নির্যাতন বন্ধ না হওয়ায় গতরাত থেকে নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকে এ ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে।

পিডিএসও/হেলাল