সাংবাদিকদের পুলিশ সুপার রশিদুল হক পিপিএম

লালমনিরহাটে দালাল চক্রের দিন শেষ

প্রকাশ : ০৯ জুলাই ২০১৯, ১৯:১৮ | আপডেট : ০৯ জুলাই ২০১৯, ১৯:৪৬

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

নিয়ম অনুযায়ী মাত্র ১০৩ টাকা দিয়ে পুলিশের চাকরি পাওয়ার কথা রীতিমতো অবিশ্বাস্য। এই অবিশ্বাস্য কথাটাই বাস্তবায়ন করে দেখালো লালমনিরহাট জেলা পুলিশ। একসময় পুলিশের চাকরির কথা শুনলেই লাখ লাখ টাকার খেলা হতো। প্রতারকদের খপ্পরে পড়ে চাকরি প্রার্থীদের নিঃস্ব হবার উদহারণও কম নেই এই জেলাতে। সম্প্রতি কয়েকদিন আগে পুলিশ ট্রেইনি পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ার প্রতিটি ধাপে প্রত্যক্ষভাবে তদারকি করে মাত্র ১০৩ টাকায় ২৭ জন যোগ্য প্রার্থীর চাকরি হওয়ায় প্রমাণ হলো লালমনিরহাটে দালাল চক্রের দিন শেষ।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপার হল রুমে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এভাবেই কথাগুলো বললেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক পিপিএম।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে পুলিশ কনস্টেবলের চাকরিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য তার কাছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের একটি নির্দেশনা বা চিঠি আসে। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী লালমনিরহাটে পুলিশ কনস্টেবল ট্রেইনি পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য গোটা জেলায় নানাভাবে প্রচারণা চালায় লালমনিরহাট জেলা পুলিশ। কনস্টেবল ট্রেইনি নিয়োগ পরীক্ষায় কোনো প্রতারক চক্রের সাথে লেনদেন না করার জন্য অনুরোধও জানানো হয়। এর অংশ হিসেবে নিয়োগ পরীক্ষার আগে থেকে পুলিশের পক্ষ থেকে গোটা জেলায় টানা কয়েকদিন থেকে লিপলেট বিতরণ, পোস্টারিং ও মাইকিং করা হয়। এছাড়া জেলা পুলিশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজেও প্রতিদিনই দেওয়া হয় নানা সচেতসতামূলক পোস্ট।

নিয়োগ প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য তিনি লালমনিরহাট জেলা পুলিশের সকল সদস্যকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) হাসান ইকবাল চৌধূরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ইন সার্ভিস) শহিদ সোহরাওয়ার্দি, সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) আমিনুল ইসলাম, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজ আলম, ট্রাফিক পুলিশের টিআই তরিকুল ইসলাম, গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ইনচার্জ (ওসি) মকবুল কোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক গেরিলা লিডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম কানা প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালোচনা করেন পুলিশ সুপার (সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত) এনএম নাসিরুদ্দিন।

পিডিএসও/হেলাল