কোম্পানীগঞ্জে সওজ প্রকল্পের অনিয়ম তদন্তে উপসচিব

প্রকাশ : ২১ মে ২০১৯, ১৭:২৬

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের জেলা মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বাংলাবাজার থেকে ছোটধলী পর্যন্ত ১৫০০ মিটার রাস্তা পাকাকরণ কাজে অনিয়মের ও দুর্নীতি অভিযোগ তদন্ত করেছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

গত বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব মো.আব্দুল মোক্তাদের নেতৃত্বে অভিযোগ তদন্ত করেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। এ সময় রাস্তাটির চারপাশ ঘুরে দেখেন তারা। এছাড়া রাস্তাটির বিভিন্ন দিকের (অভিযোগের) ভিডিও ফুটেজ সূত্রে প্রাইম কোট, বিটুমিন, পাথর সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য নিয়ে যান তারা। 

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ তদন্তের বিষয়ে নির্বাহী প্রকৌশলী বিনয় কুমার পালকে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমি তাঁর পুরো নাম জানি না, তবে তিনি নিয়মিত রুটিন ওয়ার্ক করেছেন।

এর কিছু দিন আগেও তিনি এ কাজ পরিদর্শনে এসেছেন। অভিযোগ রয়েছে, এ রাস্তাটি নির্মাণে পদে পদে অনিয়ম হয়েছে, নোয়াখালী সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী বিনয় কুমার পালের আশ্রয়ে- প্রশ্রয়ে। 

এ বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব মো.আব্দুল মোক্তাদেরকে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নিম্নমানের কাজের অভিযোগের ভিত্তিতে ও অভিযোগের ভিডিও ফুটেজের সূত্র ধরে আমরা প্রাইম কোট, বিটুমিন, পাথরসহ অন্যান্য সামগ্রী সংগ্রহ করে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য নিয়েছি। ল্যাব টেস্ট হাতে পেলে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, নোয়াখালী সওজের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়,  ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে জেলা মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের ১৫০০ মিটার সড়কের এ কার্যাদেশ পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রাজু এন্টারপ্রাইজ। মেসার্স রাজু এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. ছিদ্দিক উল্যাহ ভুট্টো দাবি করে ছিলেন, তিনি ৮০ ভাগ মানসম্পন্ন কাজ করেছেন। তবে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের বিষয়টি তিনি নাকচ করে দেন। 

পিডিএসও/তাজ