ওসি মোয়াজ্জেম কেনো রংপুরে, প্রতিবাদে জুতা প্রদর্শন

প্রকাশ : ১১ মে ২০১৯, ১৬:৩৮

রংপুর ব্যুরো

সোনাগাজিতে অধ্যক্ষ কর্তৃক মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত ধর্ষণ ও আগুনে পুড়িয়ে হত্যা ঘটনায় অভিযুক্ত ওসি মোয়াজ্জেম এখন রংপুর রেঞ্জে। এতে রংপুর অঞ্চলের মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন। অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও প্রত্যাহারের দাবিতে শনিবার দুপুরে রংপুর মহানগরীর লালবাগ মোড়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদ’র আয়োজনে সমাবেশে ছাত্রনেতা আরিফুর রহমান আরিফ ও রবিউল ইসলাম বলেন, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে রংপুর বিভাগ থেকে ওসি মোয়াজ্জেম কে প্রত্যাহার করা না হলে বৃহত্তর ছাত্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। এসময় বক্তারা আরও বলেন, বিতর্কিত ওসি মোয়াজ্জেম কে রংপুর রেঞ্জের ডিআইজিতে সংযুক্ত করায় ক্ষুদ্ধ হয়েছে এই অঞ্চলের মানুষজন। মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানকে ধর্ষণ ও আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় ওসি মোয়াজ্জেম কে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ বিভাগ। এরপরেও, কেনো বেগম রোকেয়ার পূণ্যভূমি কে কলংকিত করতে তাকে রংপুর ডিআইজি রেঞ্জে সংযুক্ত করা হলো।

ইতোমধ্যে তাকে রংপুরবাসী প্রত্যাখান করেছে। সমাবেশ শেষে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা মহানগরীর প্রধান প্রধান সড়কে জুতা মিছিল প্রদক্ষিণ করেন।

এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মানবাধিকারকর্মী মিলি মায়া বলেন, রংপুর রেঞ্জ কেনো, এ দেশের কোনও জায়গাতে এই অযোগ্যকে চেয়ার প্রদান করা যাবে না। সমাজের নারীরা এই অযোগ্যদের নিকট নিরাপদ নয়। তাই অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচার দাবি জানান তিনি।

বেরোবি’ বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন, তাকে বরখাস্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক। রংপুর জেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুর রহমান টুটুল বলেন, যেহেতু তিনি একজন দোষী। রংপুরের জনগণ তাকে মেনে নিচ্ছে না। এজন্য তাকে আমরা আর রংপুরের মাটিতে দেখতে চাই না। প্রসঙ্গত, পুলিশ সদর দপ্তরের গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশে ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের আপাতত বেতন, ভাতা ও পদ অনুযায়ী সুযোগ সুবিধা রয়েছে। এখন শুধুমাত্র নিয়ম অনুযায়ী খোরাক ভাতা পাবেন বলে নিশ্চিত করেছেন পুলিশের সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) সোহেল রানা।

পিডিএসও/রি.মা