সাধকের বাড়ি থেকে সৌদি নাগরিকের লাশ উদ্ধার

প্রকাশ : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:১৩ | আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:২৮

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
ama ami

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে এক মদ্যপ সাধকের বাড়ি থেকে আবু নাছের আল দুসারী (৪৫) নামে এক সৌদি নাগরিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মদ্যপ ওই সাধকের নাম আবু সাইদ সানী। তার বাড়ি উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিনের ডৌহাখলা গ্রামে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওই বাড়ি থেকেই লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সানী ডৌহাখলা ইউনিয়নের ডৌহাখলা গ্রামের করম আলীর ছেলে। ২০ বছর পূর্বে ঢাকার গুলশানের একটি হোটেলে আবু নাছেরের সাথে পরিচয় হয় সানীর। পূর্ব পরিচয়ের সেই সূত্র ধরে  আবু নাছের আল দুসারী গত বছরের ৯ ডিসেম্বর সানীর বাড়ি ডৌহাখলা গ্রামে আসেন। এরপর থেকে আবু নাছের আর সানী একসাথেই থাকতেন।

গতকাল রাত ৯টায় সানীর বাড়িতে আবু নাছেরর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার পর  ডৌহাখলা গ্রামে সানীর বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, সানীর শোয়ার ঘরের বিছানায় আবু নাছেরের লাশ পড়ে আছে। আর মদ্যপ অবস্থায় সানী লাশের পাশে বসে বিলাপ করছেন। কিন্তু কি কারণে আবু নাছেরের মৃত্যু হয়েছে তা কেউ নিশ্চিতভাবে বলতে পারছে না।

পরে রাত ১১টার পর গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসব ইশতিয়াক মোশারফ ঘটনাস্থলে এসে আবু নাছেরর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সৌদি নাগরিকের অনেক আগেই মৃত্যু হয়েছে। তবে কি কারণে মৃত্যু হয়েছে সেটা ময়নাতদন্ত না করে সঠিক বলা যাচ্ছে না।

এদিকে আবু সাইদ সানী মদ্যপ অবস্থায় বলেন, আবু নাছের একজন ভিসা ব্যবসায়ী। আমরা ভালো বন্ধু এবং সে প্রায়ই আমার বাড়িতে অবকাশ যাপনের জন্য আসতো। ড্রিংকস করলেও আমরা দুজন স্যোশালম্যান ছিলাম। কিন্ত আজকে তার মৃত্যু আমি মেনে নিতে পারছি না।

তিনি আরো বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে খাবার খেয়ে আবু নাছের বিছানায় ঘুমিয়ে পড়ে। কিন্তু রাত হয়ে গেলেও সে ঘুম থেকে না উঠায় আমি ডাকাডাকি করেও জাগাতে পারিনি। আমি চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। কিন্তু আমার বন্ধু নাছের নিথর হয়ে তখন পড়ে থাকে।

এদিকে আবু নাছেররের মৃত্যুর খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও গৌরীপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম বলেন, আবু নাছেরের মৃত্যুর বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সৌদি দূতাবাসকে জানানো হয়েছে। লাশ আপাতত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখার প্রস্তুতি চলছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, “জব্দকৃত আবু নাছেরের পাসপোর্ট সূত্রে জানা গেছে, তিনি সৌদি আরবের দাম্মাম নগরীর বাসিন্দা। তার বাবার নাম ফালেহ। আমরা আবু নাছেরের মৃত্যুর কারণ উদযাঘটনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তবে তদন্ত শেষ না করে মৃত্যুর কারণ বলা যাচ্ছে না।

পিডিএসও/তাজ