স্ত্রীর পরকীয়ায় আবারো স্বামীর আত্মহত্যা

প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:২০ | আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:২৪

রাজবাড়ী প্রতিনিধি
ama ami

চট্টগ্রমের পর এবার রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলায় স্ত্রীর পরকীয়া প্রেম সইতে না পেরে ২ সন্তানের জনক ফিরোজ শেখ (৪৫) নামে এক ব্যক্তি বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন।

গত কয়েকদিন অসুস্থ থাকার পর বুধবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার সকালে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মো. এজাজ শফী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

এ ঘটনায় স্ত্রীর প্রেমিক আব্দুর রব শেখকে আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত প্রেমিক আব্দুর রব শেখ (৩২) উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের হাউলি কেউটিল গ্রামের মৃত মোহন শেখের ছেলে। সেও ২ সন্তানের জনক। 

এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্র জানায়, দীর্ঘ ২৫ বছর আগে গোয়ালন্দ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কেউটিল গ্রামের গোলাপ শেখের ছেলে ফিরোজ শেখের সঙ্গে পাশের হাউলি কেউটিল গ্রামের সাহেব আলীর মেয়ে তাসলিমা বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সাংসারিক জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ভালোই

কিছুদিন আগে পাশের গ্রামের ইজিবাইকচালক দুই সন্তানের জনক আব্দুর রব শেখের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তাসলিমা। গত ২০/২৫ দিন আহে আব্দুর রব ও তাসলিমা পালিয়ে যায়। সপ্তাহখানেক পর স্থানীয়দের চাপে আব্দুর রব তাসলিমাকে তার স্বামীর কাছে ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হয়।

এরপরও তাসলিমা ও আব্দুর রব যথারীতি পরকীয়া চালিয়ে যায়। স্ত্রীর পরকীয়ার সম্পর্ক মেনে নিতে না পেরে গত শুক্রবার বিকেলে ফিরোজ শেখ বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

পরিবারের অন্য সদস্যরা বিষয়টি টের পেয়ে তাকে দ্রুত গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে প্রাাথমিক চিকিৎসা দিয়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। অবশেষে গতকাল বুধবার বিকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে। 

ফিরোজ শেখের মৃত্যুর আগেই মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে পরকীয়া প্রেমিক আব্দুর রব শেখকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে গত শনিবার রাজবাড়ীর আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পুত্র বাদী হয়ে একটি আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা করেছেন। সেই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ