মনোহরগঞ্জে এলজিআরডি মন্ত্রী

এবারের উন্নয়ন পৃথিবীকে তাক লাগিয়ে দেবে

প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২১:১৭ | আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:০২

মনোহরগঞ্জ (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, ‘আগামী পাঁচ বছর উন্নয়নের জোয়ারে পৃথিবীকে তাক লাগিয়ে দেওয়া হবে। গ্রামগঞ্জে শহরের সব সুবিধা পৌঁছে দেওয়া হবে। উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে আমরা পৌঁছবই।’

শুক্রবার কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রশাসনের গার্ড অব অনার শেষে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের লক্ষ্য উন্নত বাংলাদেশ গড়া। আর উন্নত বাংলাদেশ গড়তে হলে গ্রামগঞ্জে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা কোটি মানুষের জীবনমান উন্নয়ন দরকার। গ্রামকে উন্নত করতে না পারলে কেবল শহর উন্নয়নে উন্নত বাংলাদেশ গড়া যাবে না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে, আগামী পাঁচ বছর হবে। উন্নয়নের জোয়ারে সমগ্র পৃথিবীকে তাক লাগিয়ে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন, আমি যাতে সততার সঙ্গে সে দায়িত্ব পালন করতে পারি; সেজন্য আপনারা দোয়া করবেন। আমার নির্বাচনী আসনের অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করব ইনশা আল্লাহ।’

পরে বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারী, মনোহরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা নবনিযুক্ত মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন— কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর, পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সুসংকর চন্দ্র আচার্য, কুমিল্লা অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান, কুমিল্লা জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী সোহরাব আলী, লাকসাম উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. ইউনুছ ভূঁইয়া, কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য অ্যাড. আবু তাহের, মাষ্টার আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, অ্যাড. তানজিনা আক্তার, লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম সাইফুল আলম, মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম বানু শান্তি, মনোহরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. রফিকুল ইসলাম হিরা, মনোহরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ খান রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, আবুল কালাম আজাদ, আবুল বাশার মজুমদার, চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, আবদুল মন্নান, কামাল হোসেন, ইকবাল হোসেন, জিয়াউর রহমান শাহিন জিয়া, মোস্তফা কামাল, মহিন উদ্দিন চৌধুরী, আল আমিন ভূঁইয়া, আব্দুল হান্নান হিরন, মাষ্টার রুহুল আমিন, সাইদুর রহমান দুলাল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক দেওয়ান জসীম উদ্দিন, যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল বাশার, মাসুদ আলম, জানে আলম, কামাল হোসেন, আমীর হোসেন, মহি উদ্দিন, এমএইচ নোমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক বেল্লাল হোসেন, রুহুল আমিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন বাবলু, সহ-সভাপতি আলী আক্কাস, সহ-সভাপতি আমিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন মিলন, সাংগঠনিক সম্পাদক নূরে আলম ছিদ্দিকীসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। 

পরে এলজিআরডি মন্ত্রী উপজেলা পরিষদ চত্বরে তিনটি গাছের চারা রোপন করেন। মন্ত্রী নিজ বাড়ি মনোহরগঞ্জে মা-বাবার কবর জেয়ারত করেন এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

পিডিএসও/অপূর্ব