শ্রেষ্ঠত্বের প্রত্যাশা নিয়ে নীলফামারী মেডিকেলের যাত্রা শুরু

প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:৫৮

নীলফামারী প্রতিনিধি
ama ami

দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মেডিকেল কলেজের প্রত্যাশা নিয়ে নীলফামারী সরকারি মেডিকেল কলেজের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে নীলফামারী সদর উপজেলার পলাশবাড়িতে নবনির্মিত ছয়তলা বিশিষ্ট ডায়াবেটিক হাসপাতালে মেডিকেল কলেজটির যাত্রা শুরু হয় বৃহস্পতিবার দুপুরে।

কলেজের উদ্বোধন এবং এমবিবিএস প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের পরিচিতি অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে এর আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন নীলফামারী-০২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর।
 
বিশেষ অতিথি হিসেবে রংপুর বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) অমল চন্দ্র দাস, জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, সিভিল সার্জন ডা. রণজিৎ কুমার বর্মণ বক্তব্য রাখেন।
 
মেডিকেল কলেজের প্রভাষক সারাহ জাবিন খন্দকার ও রঞ্জন রায়ের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ ডা. রবিউল ইসলাম শাহ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ আসাদুজ্জামান নুর বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের অনেক দিয়েছেন। যা প্রত্যাশার চেয়ে অনেক বেশি। তার কারণেই ইপিজেড, নার্সিং ইনস্টিটিউট, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, আধুনিক মানের স্টেডিয়াম, যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ২৫০ শয্যার হাসপাতাল এবং সবশেষ নীলফামারী মেডিকেল কলেজ হলো আমাদের এখানে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দক্ষতার কারণেই অর্থনৈতিক সক্ষমতার পাশাপাশি সামাজিকভাবে পরিবর্তন ঘটেছে এ এলাকার মানুষের।

আসাদুজ্জামান নুর বলেন, নীলফামারী মেডিকেল কলেজটি দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মেডিকেল কলেজে রুপান্তরিত হবে এটি প্রত্যাশা আমাদের এবং নিশ্চয় বাস্তবে রুপ লাভ করবে।অনুষ্ঠানে তিনি কলেজের ৪৪জন শিক্ষার্থীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন এবং কলেজটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। 

মেডিকেল কলেজ সূত্র জানায়, ৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পেয়েছে চলতি শিক্ষাবর্ষে। ইতোমধ্যে ৪৪জন ভর্তি হয়েছেন এখানে। ছাত্রীদের জন্য ডেনিশ বাংলাদেশ লেপ্রসি মিশনে থাকার ব্যবস্থা করা হলেও ছাত্ররা থাকবেন ডায়াবেটিক ভবনেই। অধ্যক্ষসহ ছয়জন শিক্ষক এবং দু’জন সাপোর্ট স্টাফ রয়েছেন কলেজটিতে। 

পিডিএসও/অপূর্ব