সিলেটে টাস্কফোর্সের উপর হামলার ঘটনায় আসামি ৬ শতাধিক

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৪

মহানগর (সিলেট) প্রতিনিধি

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের বিরুদ্ধে টাস্কফোর্সের অভিযানের সময় হামলায় ঘটনায় মামলা হয়েছে। সোমবার রাতে কোম্পানীগঞ্জ ভূমি অফিস মামলা দায়ের করে। এতে ২৩ জনের নামোল্লেখ ও অজ্ঞাত প্রায় ৬০০ জনকে আসামি করা হয়। 

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, ‘পাথরখেকোদের হামলার শিকার আহত টাস্কফোর্স সদস্যদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হামলার ঘটনায় সোমবার রাতে ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও ৫ থেকে ৬’শ জন অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। হামলার সঙ্গে জড়িত কাউকেই কোনো ভাবে ছাড় দেয়া হবে না।’

সোমবার দুপুরে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার লিলাই বাজার এলাকায় বোমা মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের শেষ পর্যায়ে বিকেল ৩টায় পাথরখেকোদের সংঘবদ্ধ একটি চক্র ট্রাস্কফোর্সের ওপর হামলা চালায়। এসময় বিজিবির সদস্যরা ২৩ রাউন্ড গুলি ও পুলিশ সদস্যরা ৩৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়ে। 

পাথরখেকোদের হামলায় বিজিবি গোয়েন্দা বিভাগের নায়েক আব্দুর রহিম, সৈনিক হাসান মিয়া, রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর এসআই আমিনুল হক, সিপাহী রুহুল আমিন, ভূমি অফিসের চেইন ম্যান হেমায়েত হোসেন, টাস্কফোর্স অভিযানে বোমা মেশিন ধবংস ও ভাংচুরের কাজে নিয়োজিত লেবার মোবারক, মিজান, আলী হোসেন, আলমগীর, ইব্রাহিম, শাহিন সহ আরও ১০-১২ জন আহত হন। এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাসুদ রানার উপরও পাথর নিক্ষেপ করা হয়। 

তবে- তিনি তেমন আহত হননি। এসময় ঘটনাস্থল থেকে কালাইরাগ গ্রামের মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে পাথর শ্রমিক সোহেল মিয়াকে (২১) আটক করে উপজেলা প্রশাসন। আটকের পর তাকে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

পিডিএসও/অপূর্ব