রাজশাহীতে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী মেনন

‘সামাজিক নিরাপত্তা বলয় গড়তে সরকার বদ্ধপরিকর’

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ২০:২৩

রাজশাহী ব্যুরো

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, সামাজিক নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলতে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বাংলাদেশের গ্রামগঞ্জে পিছিয়ে পড়া মানুষকে সমাজে অন্তুর্ভূক্ত করার লক্ষ্যেই নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ফলে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষরা সঠিক স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছে। 

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহী নগরীর লক্ষ্মীপুর বাকির মোড়ে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের হাসপাতালটি নির্মিত হলে উত্তরাঞ্চলের ৩০ শতাংশ মানুষ বিনামূল্যে এবং স্বল্পমূল্যে চিকিৎসা সেবা পাবে। হৃদরোগ মোকাবেলায় সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টা রয়েছে। মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণে বর্তমান সরকার সকল বিধবা ভাতা, বয়স্কভাতা চালু করেছে। তাই দেশের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে আবারো রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করতে তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
 
সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের, বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক জুলফিকার হায়দার, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের সভাপতি প্রফেসর ডা. মু. নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. শাহাদাৎ হোসেন রওশন, সহ-সভাপতি মো. আব্দুল মান্নান, যুগ্ম সম্পাদক মো. এনামুল হকসহ সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

রাজশাহীর সমাজসেবা কার্যালয় ও ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান কামরু, অ্যাড. নুরুজ্জামান টুকু, মতিউর রহমান মতিসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

এ প্রকল্পের আওতায় হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীদের উন্নততর চিকিৎসাসেবা প্রদানের জন্য রাজশাহীর নিজস্ব ১ বিঘা জমিতে প্রথম পর্যায়ে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ‘Establishmen of National Heart Foundation Hospital Rajshahi’ শীর্ষক প্রকল্পটি ৪ জুলাই ২০১৮ অনুমোদিত হয়।

সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহায়তায় জুলাই ২০১৮ থেকে জুন ২০২১ মেয়াদে পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল বাস্তবায়িত হবে। প্রস্তাবিত হাসপাতালটি ৩টি ফেইজে বাস্তবায়িত হবে। প্রথম ফেইজে ১০ তলা ভিত বিশিষ্ট ৫ তলা ভবন নির্মাণ করা হবে। পরবর্তী ২ ফেইজে অপর ৫ তলা নির্মাণ করা হবে। প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৮ কোটি টাকা। 

এ প্রকল্পের আওতায় নির্মিতব্য হাসপাতালে একটি ক্যাথল্যাব ও একটি কার্ডিয়াক অপারেশন থিয়েটার স্থাপন করা হবে। এছাড়াও থাকবে ৮টি আইসিইউ বেড, ৬টি এইচডিইউ বেড, ১০টি সিসিইউ বেড, ৬টি পিসিসিইউ বেড, ৫৩টি জেনারেল বেড এবং ১৭টি কেবিন।

পিডিএসও/এআই