‘চিত্রকর্মের মাধ্যমে সমাজের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করা সম্ভব’

প্রকাশ : ০৮ অক্টোবর ২০১৮, ২০:১০

রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, জ্ঞান-বিজ্ঞান শাখার মধ্যে অন্যতম চিত্রকর্ম। একটা চিত্রকর্ম বইয়ের চেয়ে বেশি কথা বলে। সহজেই মানুষ যেনো বুঝতে পারে এমন চিত্রকর্মের মাধ্যমে সমাজের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করা সম্ভব। মাদক একটি সমাজকে কিভাবে শেষ করে দিচ্ছে এমন চিত্রকি আঁকা যায় না? সন্ত্রাস জঙ্গিবাদকে বিশ্বাস করে ভ্রান্ত হয়ে নিজের এবং পরিবারের উপর যে ক্ষতি হয় তা চিত্রকর্মের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা সম্ভব। 

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে তিন দিনব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেয়র এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রাবির চারুকলা অনুষদ জাতীয় শোক দিবস উদযাপন পরিষদ। 

অনুষ্ঠানে উদ্বোধকের বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান বলেন, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। বাংলাদেশ বললে বঙ্গবন্ধুকে বোঝায়, আবার বঙ্গবন্ধু বললে বাংলাদেশ বোঝা যায়। শিল্পকর্ম যেমন কথা বলতে পারে না, দেখে বোঝা যায়। তেমনি বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ।
 
বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক সিদ্ধার্থ শঙ্কর তালুকদারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, অধ্যাপক চৌধুরী জাকারিয়া। 

অন্যদের মধ্যে রাবির সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার তাপু, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান, টিএসসিসির পরিচালক হাসিবুল আলম প্রধান, রাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া, সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহম্মেদ রুনু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও অন্যান্য অতিথিরা বিভিন্ন শিল্পকর্ম ঘুরে দেখেন।

পিডিএসও/এআই