গীতিকার জীবন মাহমুদ গৌরীপুর থেকে নিখোঁজ

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:৪৯

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

চ্যানেল আই ও ডিসিআরইউ শোবিজ অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী তরুণ গীতিকার জীবন মাহমুদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। শুক্রবার রাতে তিনি ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর শহর থেকে নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় জীবন মাহমুদের পরিবার গৌরীপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তবে শনিবার বিকেল পর্যন্ত পুলিশ তাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জীবন মাহমুদের বাড়ি ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার শালীহর গ্রামে। গান লেখার পাশাপাশি তিনি গৌরীপুর পৌর শহরে ‘আই ফ্যাশন, নামে একটি বিপনী বিতান পরিচালনা করতেন। শুক্রবার রাত নয়টায় তিনি ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করার কথা বলে শহরের নতুন বাজার এলাকার বাসা থেকে বের হন। এরপর রাতে তিনি আর বাসায় ফিরেননি। তার ব্যবহৃত মুঠোফোনের সংযোগও বন্ধ রয়েছে। এদিকে জীবন মাহমুদ নিখোঁজের ঘটনায় তার পরিবার, স্থানীয় সঙ্গীত শিল্পী, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

জীবন মাহমুদের ছোট ভাই আবু রায়হান বলেন, ‘শুক্রবার রাত নয়টায় ভাইয়া গৌরীপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহের কথা বলে বাসা থেকে বের হওয়ার পর আর ফিরে আসেনি। রাত ১১টার পর থেকে আমরা তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে ফোন রিসিভ করেনি। এরপর রাত আড়াইটার পর থেকে তার মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে। ভাইয়ার সাথে কারো কোনো শত্রুতা নেই। তাই কি কারণে ভাইয়া নিখোঁজ হয়েছেন সেটা সঠিক বলতে পারছিনা।’

গৌরীপুর ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর আনিছ বলেন, দেশের সঙ্গীত জগতের জনপ্রিয় গীতিকার জীবন মাহমুদ গৌরীপুরের একজন স্বনামধন্য ব্যবসায়ী। তার নিখোঁজের ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। প্রশাসনের কাছে আমাদের দাবি, জীবন মাহমুদকে দ্রুত সুস্থ্য অবস্থায় উদ্ধার করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হোক।

শনিবার বিকেলে গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, জীবন মাহমুদ নিখোঁজের ঘটনায় তার পরিবার থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে। আমরা তার অবস্থান শনাক্তের জন্য প্রযুক্তির সহায়তার পাশাপাশি সম্ভাব্য জায়গায় খোঁজ করছি। আশা রাখি দ্রুত তাকে উদ্ধার করতে পারবো।

প্রসঙ্গত, জীবন মাহমুদের লেখা জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে, বেলাল খানের গাওয়া ‘সোনাপাখি’, ‘বাজী’, আসিফ আকবর ও মোহনা নিষাদের গাওয়া ‘প্রেমের নদী’, ‘এই শোন’। আসিফ আকবর ও কনার গাওয়া ‘পূজারিনী’, আসিফ আকবর ও ঐশীর গাওয়া ‘তোকে চাই’ অন্যতম।

পিডিএসও/এআই