রামেক হাসপাতালে ব্রাদারকে মারধর, আটক ২

প্রকাশ | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৫২

রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ এনে এক ব্রাদারকে মারধর করেছেন রোগীর স্বজনরা। বুধবার সকালের এ ঘটনার পর দুপুর পর্যন্ত অঘোষিত ধর্মঘট শুরু করেন নার্স ও ব্রাদাররা। এর আগে ওয়ার্ড থেকেই রোগীর দুই স্বজনকে আটক করে পুলিশ। এদের মধ্যে একজন নারীও আছেন। তবে তাদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

হাসপাতালের রোগীর অভিভাবকদের বরাত দিয়ে নগরীর রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, রামেক হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডে এক রোগীর চিকিৎসা অবহেলার অভিযোগ এনে স্বজনরা নার্সদের কাছে ভালো চিকিৎসার দাবি জানান। এ সময় কর্তব্যরত নার্সরা বলেন এখানকার চিকিৎসা পছন্দ না হলে বাইরে যেতে হবে। তখন দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে হাতাহাতি হয়। এ সময় রোগীর লোকজন শেরশাহ নামের এক ব্রাদারকে মারধর করে। খবর পেয়ে হাসপাতাল পুলিশ বক্সের সদস্যরা গিয়ে রোগীর মা ও এক বন্ধুকে আটক করে বক্সে নিয়ে যায়। পরে তাদের থানায় পাঠানো হয়। 

ওসি জানান, আটকদের থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। হাসপাতাল পরিচালকের সাথে কথা বলে তাদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে আটককৃতদের নাম পরিচয় প্রকাশ করেননি ওসি।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রহমান বলেন, হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে রোগীর স্বজনরা একজন ব্রাদারের গায়ে হাত তোলেন। তখন হাসপাতালের নার্স এবং ব্রাদাররা আমার কাছে এসে বিচার এবং নিজেদের নিরাপত্তা চান। দুপুরে আমি তাদের আশ্বস্ত করলে তারা ওয়ার্ডে ফিরে যান।

পিডিএসও/এআই