সেই মুচি জসিমের গুলিবিদ্ধ লাশ, এলাকায় স্বস্তি

প্রকাশ : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১০ | আপডেট : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:১৪

রাজীবুল হাসান ও সফিকুল আলম সবুজ, গাজীপুর

বহু মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি, বনের প্রায় ৩’শ বিঘা জমি দখল করে গ্রাম তৈরি ও পুলিশ দিয়ে সাধারণ মানুষজনদের ধরিয়ে নিয়ে অর্থ আদায়সহ নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী নিয়ে প্রকাশ্যে রামরাজত্ব গড়ে তোলা গাজীপুরের চন্দ্রার সেই জসিম উদ্দিন ইকবাল ওরফে মুচি জসিমের (৪০) গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

শুক্রবার ভোর রাতে কাপাসিয়া উপজেলার রায়েদ ইউনিয়নের ভুলেশ্বর নেতাটেক এলাকা থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ সময় ৭.৬৫ এম এম একটি বিদেশি পিস্তলও উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কাপাসিয়া থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবু বকর ছিদ্দিক।

জানা যায়, কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের পুত্র জসিম উদ্দিন প্রায় বিশ বছর আগে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে একটি জুতার কারখানায় কাজ শুরু করেন। পরবর্তীতে নানা কৌশলে এখানে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যায়। ১৭ মামলার পলাতক এই আসামি দীর্ঘদিন ধরে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেনি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে গোয়েন্দা পুলিশ তাকে জোড়া পাম্প এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে বলে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে গাজীপুর জেলা ডিবি পুলিশের ওসি আমির হোসেন জসিমকে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করেনি। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার আমাদের কোনও টিম কালিয়াকৈরে অভিযান চালায়নি।’

এদিকে জসিমের গ্রেপ্তারের খবরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এলাকাবাসী আনন্দ মিছিল এবং মিষ্টি বিতরণ করেন। খবর নিয়ে জানা যায়, মুচি জসিম নিহতের খবরে ওই এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। অপরদিকে জসিম ইকবাল ওরফে মুচি জসিম পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নাকি সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হয়েছেন সে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

পিডিএসও/রিহাব