পাখির সাহায্যে ধানের পোকা দমনে পার্চিং উৎসব

প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৩৩

গাজীপুর প্রতিনিধি

পাখির সাহায্যে ধানের পোকা দমন পদ্ধতি ‘পার্চিং’ উৎসব বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটে (ব্রি) উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ব্রি’র মহাপরিচালক ড. মো. শাহজাহান কবীর ওই উৎসবের উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব ও মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্রি’র কীটতত্ত্ব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. শেখ শামিউল হক। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ব্রি’র পরিচালক (প্রশাসন) ড. মো. আনছার আলী এবং পরিচালক (গবেষণা) ড. তমাল লতা আদিত্য।

ব্রি’র প্রকাশনা ও জনসংযোগ বিভাগের প্রযুক্তি সম্পাদক ও প্রধান এম এ কাসেম জানান, পার্চিং হচ্ছে গাছের ডাল বা বাঁশের কঞ্চি ইত্যাদি খাড়াভাবে জমিতে পুঁতে পাখি বসার ব্যবস্থা করা। ধানের জমির ক্ষতিকর পোকামাকড় দমনে পার্চিং বেশ কার্যকর। দিনের বেলায় ফিঙে, শ্যামা ও শালিক পাখি এসব ডালপালায় বসে ধান ক্ষেতের পোকামাকড় ধরে খায়। আর রাতের বেলায় লক্ষ্মী পেঁচা ওই ডালে বসে ইঁদুর শিকার করে মাঠ ফসলে অবস্থানকারী ইঁদুরের সংখ্যা কমিয়ে দেয়। প্রতি একশ’ বর্গমিটার জমিতে একটি করে গাছের শক্ত ডাল বা বাঁশের কঞ্চি পুঁতে দিয়ে বেশ সহজেই ধানক্ষেতে এ পদ্ধতি প্রয়োগ করা যায়। 

তিনি আরো জানান, ইনস্টিটিউটের কীটতত্ত্ব বিভাগ আয়োজিত পার্চিং উৎসবে একযোগে রাজশাহী, রংপুর, কুষ্টিয়া, সাতক্ষীরা, ভাঙা, বরিশাল, কুমিল্লা, হবিগঞ্জ ও সোনাগাজীতে অবস্থিত ব্রি’র ৯টি আঞ্চলিক কার্যালয় এবং গাজীপুর সদরদপ্তরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পার্চিং উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। ব্রি’র ১৯টি গবেষণা বিভাগের প্রধানগণ উর্ধ্বতন বিজ্ঞানী ও কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

পিডিএসও/ এআই